sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » লাদেনের বৌমা ৯/১১- হামলাকারীর মেয়ে!


  লাদেনের বৌমা ৯/১১- হামলাকারীর মেয়ে!
গোয়েন্দা সূত্রের খবর, লাদেনের জীবিত সন্তান এবং স্ত্রীরা এখন রয়েছেন সৌদি আরবে। প্রাক্তন রাজা মহম্মদ বিন নায়েফ তাঁদের শরণার্থী হিসাবে সৌদিতে আশ্রয় দেন


 : ওসামা বিন লাদেনের ছেলের বিয়ে। পাত্রী ৯/১১ হামলার অন্যতম চক্রির মেয়ে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, মহম্মদ আট্টা নামে যে সন্ত্রাসবাদী মার্কিন বিমান অপরহণ করে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলা চালিয়েছিল, তাঁর মেয়েকেই বিয়ে করে ওসামার হামজা বিন লাদেন। আর এই

খবর প্রকাশ্যে নিয়ে আসে লাদেনের সত্ ভাই আহমেদ এবং হাসান অল-আট্টাস।



আহমেদ বলেন, “আমরা শুনেছি মহম্মদ আট্টার মেয়েকে বিয়ে করেছে হামজা। কিন্তু এখন সে কোথায় আছে তা আমরা জানি না।” তবে হামজা এখন আফগানিস্তানে থাকতে পারে বলে অনুমান করছেন লাদেনের ভাইরা। আহমেদ এবং হাসানের আরও দাবি, আল কায়দা জঙ্গি সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছে হামজা।


লাদেনের জীবিত তিন স্ত্রীর মধ্যে এক স্ত্রী খাইরা সবরের ছেলেই হল এই হামজা। ২০১১ সালে ২ মে পাকিস্তানে অ্যাবোটাবাদে স্ত্রী খাইরার সামনেই মার্কিন সেনা খুন করেছিল লাদেনকে। উল্লেখ্য, হামজাকে লাদেন নিজে হাতে প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু করেছিল বলে সূত্রের খবর। সংগঠনের মাথায় হামজাকে বসানোর চেষ্টায়ও ছিল তার। পরে  হামজাকে প্রকাশ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের বিরুদ্ধে হুমকি দিতে শোনা গিয়েছে। এমনকী বাবার প্রতিশোধ নিতে ফের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চালানোর হুমকিও দেয় লাদেন পুত্র।



হামজার অবস্থান সম্পর্কে সদা সজাগ রয়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা। জানা গিয়েছে দু’বছর আগে হামজার ঘাঁটি সম্পর্কে জেনেছিল গোয়েন্দারা। উল্লেখ্য, অ্যাবোটাবাদের বাড়িতে অভিযান চালানোর সময় লাদেনের আরও এক ছেলে মারা যায় মার্কিন সেনার হাতে। ২০০৯ সালে আফগানিস্তানে ড্রোন হামালায় মৃত্যু হয় সাদ নামে লাদেনের আরও একটি ছেলের।

গোয়েন্দা সূত্রের খবর, লাদেনের জীবিত সন্তান এবং স্ত্রীরা এখন রয়েছেন সৌদি আরবে। প্রাক্তন রাজা মহম্মদ বিন নায়েফ তাঁদের শরণার্থী হিসাবে সৌদিতে আশ্রয় দেন। তবে, পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদের সঙ্গে পরিবারের যোগাযোগ রয়েছে, এ খবর জানিয়েছেন খোদ লাদেনের মা আলিয়া ঘানেম। তিনি জানিয়েছে প্রতি দিনই লাদেনের স্ত্রীদের সঙ্গে কথা হয় তাঁর।




উল্লেখ্য, ২০০১ সালে ১১ সেপ্টেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ওয়াল্ড ট্রেড সেন্টার ও পেন্টাগনে হামলা চালায় জঙ্গি বিমান। এই হামলায় মৃত্যু হয় ৩ হাজারেরও বেশি মানুষের। হামলার দায় স্বীকার করেছিল তালিবান জঙ্গি সংগঠনের সুপ্রিমো ওসামা বিন লাদেন। উল্লেখ্য, হামজার শ্বশুর মিশরের নাগরিক মহম্মদ আট্টা আমেরিকান এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ১১ অপহরণ করে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলা চালিয়েছিল। ১৩ জন অপহরণকারী যুক্ত ছিল এই অভিযানে। ৩৩ বছর বয়সী আট্টা ছিল ওই জঙ্গিদের মধ্যে সবচেয়ে প্রবীণ। 

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply