sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » ডেম্বেলে-সুয়ারেজে বার্সার টানা চতুর্থ জয়




১২ মিনিটে গোল হজম করে দ্বিতীয়ার্ধে দুই মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে চলতি লা লিগা মৌসুমে টানা চতুর্থ জয় ছিনিয়ে নিল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা।
শনিবার রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠ এস্তাদিও দ্য এনোয়েটা স্টেডিয়ামে আতিথেয়তা নিতে যায় কাতালান ক্লাবটি। সাম্প্রতিক সময়ে রিয়াল সোসিয়েদাদ মানেই যেন বার্সেলোনার জন্য একটি আতঙ্কের নাম। শুরুতে এমনটাই আভাস দিচ্ছিল সোসিয়েদাদ।

শনিবার ম্যাচের শুরুটা ছিল অন্যরকম। ম্যাচের ১২তম মিনিটেই গোল হজম করে বসে বার্সেলোনা। প্রায় ৪০ গজ দূর থেকে ফ্রি-কিকে উড়ে আসা বল বিপদমুক্ত করতে পারেননি বার্সার ডিফেন্ডাররা। ফাঁকায় বল পেয়ে আলতো ভলিতে বল জালে জড়িয়ে দেন সোসিয়েদাদের ডিফেন্ডার আর্তিজ এলুসতোন্দো।
সেই গোল শোধ করতে বার্সেলোনাকে অপেক্ষা করতে হয়েছিল ৬৩ মিনিট পর্যন্ত। মাঝখানে মেসির একাধিক গোলের সুযোগ ব্যর্থ না হলে এত সময় পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হয় না দলটিকে। গোল খেয়েই পরিশোধের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে বার্সেলোনা। মুহুমুহু আক্রমণে তটস্ত করে রাখে প্রতিপক্ষের ডিফেন্স। কিন্তু ওই পর্যন্তই। সোসিয়েদাদের ডিফেন্সে গিয়েই সব আক্রমণ ফিরে আসে।

শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বার্সেলোনা। বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৬৩ মিনিটে বার্সাকে সমতায় ফেরান লুইস সুয়ারেজ। কর্নার থেকে আসা বলে জেরার্ড পিকের হেড বিপদমুক্ত করতে পারেনি স্বাগতিক গোলরক্ষক। পিকের সেই হেডে স্যামুয়েল উমতিতির পা ছুঁয়ে বল পড়ে সুয়ারেজের পায়ে। জটলার মধ্যে বল পেয়ে জালে পাঠান ৩১ বছর বয়সী এ উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ড।



সুয়ারেজের গোলে স্বস্তি পাওয়ার পর মাত্র দুই মিনিট পরই জয়সূচক গোল পেয়ে যায় বার্সা। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল স্বাগতিক গোলরক্ষক রুলি পাঞ্চ করেছিলেন ঠিকই, কিন্তু তার পাঞ্চে ফাঁকায় দাঁড়ানো ডেম্বেলে বল পেয়ে বক্সের ভেতর থেকে জোরালো শটে জালে পাঠান বিশ্বকাপ জয়ী ফরাসি স্ট্রাইকার। শেষ পর্যন্ত আর কোন দল গোল না পাওয়ায় ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোন।
চার ম্যাচে পূর্ণ ১২ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। সমান সংখ্যক ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রিয়াল মাদ্রিদ।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply