sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » আলজেরিয়ার স্বাধীনতা যুদ্ধে নির্যাতনের কথা স্বীকার করলো ফ্রান্স







ফ্রান্স এই প্রথমবারের মতো আলজেরিয়ার স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছে। আলজেরিয়ার স্বাধীনতাপন্থী কর্মী মরিস অডিনের কথা উল্লেখ করে ফরাসি বাহিনীর নির্যাতনের বিষয়ে বিরল স্বীকারোক্তি দেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

১৯৫৭ সালে এই গণিতবিদকে গ্রেপ্তার করার পর তিনি নিখোঁজ হন। ফরাসি বাহিনীর হাতে নির্যাতনের কারণে তার মৃত্যু হয়।

বৃহস্পতিবার অডিনের স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে ফরাসি প্রেসিডেন্ট বলেন, আমি কেবল সত্যটাই স্বীকার করছি। প্যারিসে বসবাসকারী জোসেট অডিন সাংবাদিকদের বলেন, আমি কখনও ভাবিনি যে এমন দিন আসবে।

আলজেরিয়ার স্বাধীনতা যুদ্ধের পর জন্ম হয় প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর। গত বছর নির্বাচনী প্রচারণার সময় প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ বলেন, ফ্রান্সকে তার অতীতের ‘মুখোমুখি’ হতে হবে। তার ওই বক্তব্য ব্যাপক সমালোচনার জন্ম হয়।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এক সাক্ষাৎকারে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, উপনিবেশ স্থাপন ফ্রান্সের ইতিহাসের অংশ। এটা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ, এটা প্রকৃতপক্ষে বর্বর এবং এটা অতীতের অংশ, যেটির মুখোমুখি আমাদের অবশ্য হতে হবে।

১৯৫৭ সালের ১১ জুন গ্রেপ্তার হওয়ার পর নিখোঁজ হন কমিউনিস্ট পার্টির কর্মী মরিস অডিন

তিনি বলেন, একইসঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে এই অপরাধ করেছি তাদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।

১৩০ বছর ফ্রান্সের উপনিবেশ থাকার পর আলজেরিয়া ১৯৬২ সালে পুরোপুরি স্বাধীনতা লাভ করে। তবে আলজেরীয় স্বাধীনতাকামীদের ওপর নির্মমভাবে অভিযান চালায় ফ্রান্স। ১৯৫৪ সালে শুরু হয়ে ১৯৬২ সাল পর্যন্ত চলা ওই যুদ্ধে প্রায় ১৫ লাখ আলজেরীয় নিহত হয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply