sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » সাত ঘণ্টা পরও জ্বলছে কলকাতার বাগরি মার্কেট




পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার বাগরি মার্কেটে লাগা ভয়াবহ আগুন প্রায় সাত ঘণ্টায়ও নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি। মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খেতে হচ্ছে দমকল কর্মীদের। খবর আনন্দবাজার, জি নিউজ, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।
খবরে বলা হয়েছে শনিবার দিনগত রাত ২টা ৪৫ মিনিটের দিকে মধ্য কলকাতার ক্যানিং স্ট্রিটের অবস্থিত বাগরি মার্কেটের ভেতর থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডলী উঠতে দেখেন স্থানীয়রা।
আগুন নেভাতে দমকল বাহিনীর ৩০টি কাজ করে যাচ্ছে। তবে প্রায় সাত ঘণ্টা পরও আগুন সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। আগুন লাগার পরপরই ঘটনাস্থলে হাজির হন কলকাতার মেয়র ও দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়। কলকাতার পুলিশ কমিশনারসহ একাধিক উচ্চপদস্থ কর্তারাও ঘটনাস্থল উপস্থিত হন।

মেয়র এবং দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, এলাকাটা প্রচণ্ড ঘিঞ্জি। তাই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সময় লাগছে। তবে দমকলকর্মীরা সব ধরনের চেষ্টা করছেন।
তিনি বলেন, রাত ২টা ৪৫ মিনিটের দিকে আগুন লাগে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পরই আগুন লাগার আসল কারণ জানা যাবে। তদন্ত করা হবে।
মেয়র এবং দমকলমন্ত্রী শোভন আরও বলেন, আগুনের তীব্রতা এতটাই যে পুরো এলাকা কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে। দমকলকর্মীরা বিল্ডিংয়ের জানালা ও শাটার ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করছেন বলেও জানান তিনি।

এদিকে দমকল বাহিনীর মহাপরিচালক বলেছেন, ভবনটির ভেতর দাহ্য বস্তু মজুত রয়েছে। তবে আগুন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা নেই। যদিও স্থানীয়দের দাবি, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছে না দমকল বাহিনী। একটির পর একটি দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ছে।
অন্যদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আগুনের গ্রাসে মার্কেটের একাংশের ইমারতে থাকা কাঁচ ভেঙে পড়তে থাকে। কিছুক্ষণ পরপর বিকট শব্দও শোনা যায়। তবে এখন পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। কিন্তু সামনেই পূজা, এর আগে এ ধরনের ভয়াবহ আগুনে ব্যাপক ক্ষতি মুখে পড়তে হবে ব্যবসায়ীদের।
জানা গেছে, এই মার্কেটে হাজার খানেক দোকান ছিল। এদিকে কী কারণে আগুন লেগেছে সেটি তাৎক্ষণিকভাবে জানতে পারেনি দমকল বাহিনী। তবে প্রাথমিকভাবে তারা মনে করছে, শর্ট সার্কিট থেকেই এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply