sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

নির্বাচন

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » সহযোগিতার ক্ষেত্রে ইরান ও তুরস্ক একে অপরের বিশ্বস্ত বন্ধু



ইরানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুর রেজা রহমানি ফাজলিপুর এবং তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলাইমান সাইলু নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করেছেন। তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এ সাক্ষাতে ইরানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সীমান্তে নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা, মাদক রোধ, পণ্য ও মানব পাচার ঠেকানো এবং সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার বিষয়ে দু'দেশের মধ্যে সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, অর্থনৈতিক, বাণিজ্য ও পর্যটন ক্ষেত্রে ইরান ও তুরস্ক আরো ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারে। এ সাক্ষাতে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও বলেছেন, সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা করা, মাদক চোরাচালান ঠেকানো, পণ্য পাচার ও বেআইনি অভিবাসন রোধ এবং সীমান্তে নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তেহরান ও আঙ্কারার মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রয়েছে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইরান ও তুরস্কের মধ্যে দীর্ঘ সীমান্ত  এবং সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত বন্ধনের কারণে বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ও সহযোগিতা বিস্তারে দুই দেশ ভূমিকা রাখতে পারে। সম্প্রতি দু'দেশের প্রেসিডেন্টদের মধ্যকার সাক্ষাতে এ সম্পর্কের গুরুত্ব বহুগুণে বেড়েছে। ইরান ও তুরস্কের প্রেসিডেন্টরা এ পর্যন্ত সাতবার সাক্ষাতে মিলিত হয়েছেন। এ থেকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ও সহযোগিতা সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যেতে দু'দেশের আগ্রহের বিষয়টি ফুটে উঠেছে।

নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিকসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তেহরান ও আঙ্কারার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা বজায় রয়েছে। বাইরের কোনো দেশের দ্বারা প্রভাবিত না হয়ে ইরান ও তুরস্ক স্বাধীনভাবে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা বজায় রেখেছে। এ কারণে তুরস্কের কর্মকর্তারা বহুবার ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতা করেছেন। এ ব্যাপারে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু বলেছেন, তার দেশ ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা মানবে না বরং তারা তেহরানের সঙ্গে বাণিজ্য সহযোগিতা আরো বাড়াবে।

ইরানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তুরস্ক সফরের আগে ইরানের সংসদ স্পিকার আলী লারিজানি গত মঙ্গলবার আন্তালিয়ায় তুর্কি সংসদ স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাত করেন। ওই সাক্ষাতে লারিজানি বলেন, ইরান ও তুরস্কের মধ্যে সবসময়ই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় ছিল এবং যে কোনো পরিস্থিতিতে এ দুই দেশ একে অপরের পাশে রয়েছে। তিনি বলেন, সিরিয়া সমস্যা সমাধানে ইরান, তুরস্ক ও রাশিয়া যে চেষ্টা চালাচ্ছে তাতে কোনো কোনো দেশ অসন্তুষ্ট।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, প্রতিবেশী দেশ হিসেবে ইরান ও তুরস্কের মধ্যকার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক অন্যান্য দেশের সঙ্গে আঞ্চলিক সম্পর্ক বিস্তারেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে যা কিনা আঞ্চলিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় সহায়ক হবে।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply