sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

নির্বাচন

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » প্রথমবারের মতো সমলিঙ্গের সফল প্রজনন



রুষের সঙ্গে পুরুষের যৌনক্রিয়ায় প্রজনন সম্ভব? অথবা দুই নারীর যৌন মিলন কী সন্তানের জন্ম দিতে পারে? এতদিন পর্যন্ত কেউ এমন প্রশ্ন করলে উত্তর অবশ্যম্ভাবী না-ই হত। কিন্তু এবার বোধ হয় একটু নড়ে-চড়ে বসার সময়। সমলিঙ্গে প্রজনন সম্ভব। সেটাই প্রমাণ করে দিলেন একদল বিজ্ঞানী। চিকিৎসা বিজ্ঞানের বড় সাফল্য।


 সেল স্টিম জার্নাল-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ জানিয়েছে, এক দল বিজ্ঞানী দুটি সমলিঙ্গের ইঁদুরের প্রজনন ঘটিয়েছেন। দুটি পুরুষ ইঁদুরের মধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে সঙ্গম করানো হয়। ২৯টি বাচ্চার জন্ম দিতে সফল হন তারা। যদিও জন্মানোর পর বাচ্চারা মাত্র ৪৮ ঘণ্টা জীবিত ছিল।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই প্রথম পরীক্ষামূলকভাবে দুটি সমলিঙ্গের প্রাণীয় মধ্যে প্রজনন ঘটাতে সফল হলেন তারা। এর আগে বহুবার সমলিঙ্গ যুগলের প্রজনন ঘটানোর চেষ্টা করেও সফল হননি বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞানীরা এটাও জানিয়েছেন, স্তন্যপায়ী প্রাণীদের ক্ষেত্রে এই প্রক্রিয়া জটিল। এক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়ার সম্ভাবনাও অনেকটাই কম। কিন্তু তারা হাল ছাড়ছেন না। ইতিমধ্যে বিভিন্ন প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণীদের উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু হয়েছে। এমন পর্যায় সদ্যোজাতকে বাঁচিয়ে রাখাটাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

মানুষের ক্ষেত্রে কি সমলিঙ্গে প্রজনন সম্ভব? সেই ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা এখনই কোনো শক্ত ধারণা দিতে নারাজ। তাদের বক্তব্য, নতুন প্রাণের সঞ্চার করতে হলে পুরুষ ও নারী, দুজনেরই সমান ভূমিকা প্রয়োজন। কিন্তু তারা এমন একটি প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা শুরু করেছেন যেখানে এক পক্ষের জিন দিয়েই প্রজননের চেষ্টা করা যেতে পারে। গবেষকরা বলছেন, সাধারণত শুক্রানুর সঙ্গে শুক্রানুর মিলনে প্রজনন ঘটানোর প্রক্রিয়া জটিল হতে পারে। এক্ষেত্রে ডিম্বানু সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে। এর আগে দুটি স্ত্রী ইঁদুরের মধ্যে সঙ্গম ঘটিয়ে প্রজননের চেষ্টা করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। সেবার জন্মানো বাচ্চারা দীর্ঘদিন বেঁচে ছিল।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply