sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » সিরিয়ায় ‘কার্যকর’ উপস্থিতি বজায় রাখবে ইরান: আইআরজিসি



ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী- আইআরজিসি বলেছে, সামরিক উপদেশ দেয়ার লক্ষ্যে সিরিয়ায় ইরানের উপস্থিতি যতদিন ‘উপকারি ও কার্যকর’ হিসেবে বিবেচিত হবে ততদিন দেশটিতে সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখবে তেহরান।

আইআরজিসি’র মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল রামেজান শরিফ ইরানের ইংরেজি ভাষার নিউজ চ্যানেল প্রেস টিভিকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে একথা বলেন। তিনি বলেন, সিরিয়ায় ২০১১ সালে সংকট শুরু হওয়ার সময় থেকে আন্তর্জাতিক আইন মেনে সিরিয়া সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছে ইরান।

জেনারেল শরিফ বলেন, সিরিয়ায় নিরাপত্তাহীনতা ছড়িয়ে দিয়ে ইহুদিবাদী ইসরাইলের জন্য একটি নিরাপদ বলয় তৈরি করা ছিল এই সংকট সৃষ্টির মূল উদ্দেশ্য। সিরিয়ার বৈধ সরকারের অনুরোধে সাড়া দিয়ে ইরান দেশটিতে সামরিক উপদেষ্টাদের পাঠিয়েছে বলে জানান তিনি।



সিরিয়ার সেনাবাহিনী সাম্প্রতিক সময়ে সন্ত্রাসীদের কবল থেকে দেশটির বেশিরভাগ এলাকার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে
আইআরজিসি’র মুখপাত্র বলেন, বিদেশি মদদ চাপিয়ে দেয়া সন্ত্রাসবাদ দমনে সিরিয়ার সেনাবাহিনীকে নিজেদের অভিজ্ঞতা দিয়ে সহযোগিতা করেছেন ইরানের সামরিক উপদেষ্টারা। সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও জনগণের সম্মিলিত প্রতিরোধের ফলে দেশটিতে চরম নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টির জন্য ইহুদিবাদী ইসরাইল ও তার মিত্রদের ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। জেনারেল শরিফ বলেন, সিরিয়া যুদ্ধের ফলাফল ইসরাইলের জন্য ‘বিশাল ক্ষতি’ বয়ে এনেছে।

আইআরজিসি’র মুখপাত্র বলেন, ১৯৮০’র দশকে ইরানের ওপর ইরাকের তৎকালীন বাথ সরকারের চাপিয়ে দেয়া আট বছরের যুদ্ধের সময় সিরিয়া ছিল একমাত্র আরব দেশ যেটি ইরানের ন্যায়সঙ্গত অধিকারের প্রতি সমর্থন জানিয়েছিল। এমকি সে সময় সিরিয়া ইরানকে সামরিক উপদেষ্টা দিয়ে সহযোগিতা করেছিল।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply