sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

নির্বাচন

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার বাউল শিল্পী



সাভারের আশুলিয়ায় এক বাউল শিল্পীকে আটকে রেখে গণধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা  করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃত আসামি গাজীরচট এলাকার ফজল ভুইয়ার ছেলে বাদশা ভুইয়াকে (৪০) আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। তবে এ ঘটনার মূলহোতা একই এলাকার এমারত ভুইয়ার ছেলে সুজন ভুইয়াকে (৩৫) এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।
এদিকে ধর্ষিতা ওই বাউল শিল্পীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বুধবার আশুলিয়ার গাজীরচট এলাকায় ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বেলায়েত হোসেন জানান, আশুলিয়ার পলাশবাড়ী এলাকায় বসবারত ৩০ বছর বয়সী ওই বাউল শিল্পী বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান করতেন।

বুধবার দুপুরে তিনি গাজীরচট এলাকায় পাওনা টাকার জন্য আবুল কালাম নামের অপর এক বাউল শিল্পীর দোকানে যান। এসময় কালাম নারী শিল্পীকে দোকানে বসিয়ে রেখে বাহিরে চলে গেলে সুজন ভুইয়া এক শিশুকে দিয়ে তাকে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে বাদশা নামের আরেক ব্যক্তি ওই শিল্পীকে তার বাড়ির একটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে আবারও ধর্ষণ করে। এরইমধ্যে দোকানি কালাম বিষয়টি জেনে যায়।
এদিকে বাদশা ও সুজন বাউল শিল্পী কালামকে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে এসে মারধর করে এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়। এছাড়াও এ বিষয়ে কাউকে কিছু জানালে তাকে ইয়াবা দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়ার হুমকি দিয়ে সন্ধ্যার দিকে দুই বাউল শিল্পীকে ছেড়ে দেয় তারা।
এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই নারী আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করলে বাদশা ভুইয়াকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে পলাতক সুজন ভুইয়াকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply