sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

নির্বাচন

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মার্কিন যুদ্ধজাহাজের একেবারে কাছে অবস্থান চীনা ডেস্ট্রয়ারের



দক্ষিণ চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের একটি যুদ্ধজাহাজের টহলের সময় সেটির গতিপথ পরিবর্তনে বাধ্য করতে চীনের একটি ডেস্ট্রয়ার ওই মার্কিন জাহাজের একেবারে কাছের জলসীমায় অবস্থান নেয়।
সোমবার মার্কিন এক কর্মকর্তা চীনের এমন পদক্ষেপকে ‘অনিরাপদ ও অপেশাদারিত্বমূলক’ প্রতিরোধ হিসেবে উল্লেখ করেন।

ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস ডেকাটুর রোববার ‘নৌ মহড়ার স্বাধীনতার’ কথা উল্লেখ করে সামরিক কার্যক্রম পরিচালনা করে। এ সময় জাহাজটি স্প্রাতলি দ্বীপপুঞ্জের জেভান ও জনসন প্রবালবপ্রাচীরের ১২ নটিক্যাল মাইল দূর দিয়ে যায়। সাধারনত: কোন দেশের ভূ-খন্ড থেকে ১২ নটিক্যাল মাইল দূরত্বের জলসীমা ওই ভূ-খন্ডের সীমানা বিবেচনা করা হয়। আর সেই দূরত্ব বজায় রেখেই এ সামরিক কার্যক্রম চালানো হয়।
চীন দক্ষিণ চীন সাগরের প্রায় পুরোটাই তাদের বলে দাবি করে আসলেও তাইওয়ান, ফিলিপাইন, ব্রুনাই, মালয়েশিয়া ও ভিয়েতনামও এ সাগরের অনেক অংশ দাবি করে আসছে।
বেইজিংয়ের দাবি পুরো স্প্রাতলি তাদের ভূ-খন্ডের অংশ এবং সেখানে তারা অনেক সামরিক স্থাপনা নির্মাণ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রশান্ত মহাসাগরীয় ফ্লীটের মুখপাত্র কমান্ডার নেট ক্রিস্টেনসেন বলেন, দক্ষিণ চীন সাগরের জেভান প্রবালপ্রাচীরের কাছে এ সামরিক অভিযান চলাকালে লুয়াং নামের চীনের একটি যুদ্ধজাহাজের ইউএসএস ডেকাটুরের দিকে এগিয়ে আসা ছিল একটি ‘অনিরাপদ ও অপেশাদারিত্বমূলক’ পদক্ষেপ।
চীনের ডেস্ট্রয়ারটি ডেকাটুরের অগ্রভাগের ৪৫ গজের মধ্যে চলে আসে। এ সময় ডেকাটুর সংঘর্ষ এড়াতে রণকৌশল অবলম্বন করে।
এ ব্যাপারে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজটি বিনা অনুমতিতে ওই এলাকায় প্রবেশ করায় সেটিকে সেখান থেকে চলে যেতে চীনের জাহাজ থেকে সতর্ক করে দেয়া হচ্ছিল।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply