sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » রংপুরে বাবু সোনা হত্যা মামলার প্রধান আসামি মারা গেছেন


রংপুরে পরকীয়ার জেরে অ্যাডভোকেট রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুল ইসলাম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।
শনিবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রমেক) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
কামরুল ইসলামের লাশ বর্তমানে রমেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে তার লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
রংপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোখতারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, কামরুল ডায়াবেটিস ও হৃদরোগসহ নানা রোগে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্যে সাক্ষগ্রহণ চলাকালে তাকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এক সপ্তাহ যাবৎ শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন তিনি। শুক্রবার রাতে অসুস্থতা বাড়লে ভোর ৫টা ২০ মিনিটে তাকে কারাগার থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। সেখানে সাড়ে ৫টার দিকে মারা যান কামরুল।
চলতি বছরের ২৯ মার্চ সকালে বাসা থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর থেকে আইনজীবী রথিশ চন্দ্রের কোনও সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না বলে তার স্ত্রী দীপা ভৌমিক অভিযোগ করেছিলেন। পরে এ ঘটনায় তার ছোট ভাই সুশান্ত ভৌমিক থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। পুলিশ প্রথমে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে নিহত আইনজীবী রথিশের স্ত্রী দীপা ভৌমিকের প্রেমিক কামরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে তেমন কোনও তথ্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ।
এরপর ৪ এপ্রিল র‌্যাব দীপা ভৌমিককে আটক করে নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে রথিশ চন্দ্রকে প্রেমিক কামরুল ইসলামের সহায়তায় ২৯ মার্চ রাতেই তাদের বাবু পাড়া বাসায় হত্যা করে লাশ কামরুলের নির্মাণাধীন বাসায় মাটিতে পুঁতে রাখার কথা স্বীকার করে। সেই সূত্র ধরে বাবু সোনার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply