sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » শরীরে ভিটামিন ‘ডি’ অভাবের ৬ লক্ষণ


ভিটামিন ডি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভিটামিন যা আমাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রতঙ্গের নিয়ন্ত্রণ করে। আমাদের দাঁত, হাড় এবং সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য ভিটামিন ডি বেশ কার্যকর।

সূর্যের আলো ভিটামিন ডি এর অন্যতম উৎপাদান। এটি এমন এক দ্রবণীয় ভিটামিন যা ভিটামিন ডি-১, ডি -২ এবং ডি -৩ অন্তর্ভুক্ত করে। হাড় এবং দাঁতের স্বাভাবিক বৃদ্ধির জন্য এবং রোগ প্রতিরোধেও এটি গুরুত্বপূর্ণ।

এছাড়াও এটি ওজন হ্রাস ত্বরান্বিত করতে, বিষণ্নতার লক্ষণগুলিকে হ্রাস করতে এবং শরীরের কার্যকারিতাকে সচল রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন ডি-এর অভাব আপনার স্বাস্থ্যের উপর বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে।

ভিটামিন ডি ঘাটতি অন্যতম গুরুতর অথচ সাধারণ স্বাস্থ্য সমস্যা। এনসিবিআই অনুসারে বিশ্বব্যাপী জনসংখ্যার প্রায় ৫০ শতাংশ ভিটামিন ডি ঘাটতিতে ভোগে। মার্কিন ইনস্টিটিউট অফ মেডিসিনের পরামর্শ অনুযায়ী, গড়ে দৈনিক ১০-২০ মাইক্রোগ্রামের ভিটামিন ডি খাওয়া প্রয়োজন আমাদের।

ভিটামিন ডি ঘাটতির কারণ কী কী?

১)  দূষণীয় এলাকায় বসবাস করা।

২) বাড়ির ভিতরে বেশি সময় কাটানো।

৩) ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার না খাওয়া।

৪) সূর্যালোকহীন বাড়িতে বসবাস।

ভিটামিন ডি-এর অভাবে যেসব উপসর্গ দেখা যায়-

১) ক্লান্তি, ব্যথা এবং সারাক্ষণ অসুস্থতা বোধ করা।

২) হাড় এবং পেশীতে যন্ত্রণা বা সাধারণ দুর্বলতা যার ফলে সিঁড়িতে চড়তে বা মেঝেতে বসার পর উঠতে সমস্যা হতে পারে।

৩) গুরুতর ক্ষেত্রে, বিশেষত আপনার উরু, শ্রোণী এবং হিপের হাড় ভেঙ্গে যেতে পারে।

৪) অতিরিক্ত চুল পড়া।

৫) আঘাত সারতে অনেক সময় নেওয়া।

৬) বিষণ্নতায় ভুগা।

ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার

আমরা সহজেই সূর্যালোক থাকে ভিটামিন ডি পেতে পারি।তবে কিছু খাবার আছে যা থেকে আমরা ভিটামিন ডি এবং ক্যালসিয়ামে প্রচুর পরিমাণে পেতে পারি। আমরা কিছু প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি-সমৃদ্ধ খাবারগুলি তালিকাভুক্ত করেছি যা অবশ্যই আপনার ডায়েটে যোগ করা উচিত।

যেমন-স্যামন মাছ, ডিমের কুসুম, সোয়া দুধ, দুগ্ধজাত সামগ্রী, দই, মাশরুম, চিজ এবং কমলালেবু ইত্যাদি।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply