sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

নির্বাচন

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ না, প্রয়োজনে হাইকোর্টে যাব'--হিরো আলম।

হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ না, প্রয়োজনে হাইকোর্টে যাব' ষড়যন্ত্র করে প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেয়া হিরো আলম। প্রার্থিতা ফিরে পেতে তিনি প্রয়োজনে হাইকোর্টে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) নির্বাচন ভবনে আপিলের শুনানি শেষে তিনি এসব কথা বলেন। হিরো আলম বলেন, 'মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার পর আমি আপিল করেছিলাম সেটা নামঞ্জুর করা হয়েছে। আজকে এখানে যারা স্বতন্ত্র প্রার্থী তাদের সবাইকে বাদ দেয়া হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মনোনয়ন না দেয়ার কারণ আমি মনে করি, ষড়যন্ত্র। আর এসব কিছু রাজনৈতিক চালে চলছে। আমি এখন হাইকোর্টে আপিল করবো, আমি এর শেষ দেখে নেব। রাজনীতির মাঠ থেকে চলে যাওয়ার হিরো আলম আমি না। জনপ্রিয়তা আছে বলেই আমি আজকের হিরো। এত সহজে আমাকে জিরো করবে এটা আমি ছাড়বো না।' এরআগে প্রার্থিতা ফিরে পেতে করা তার আপিলের শুনানি শেষে প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে নির্বাচন কমিশন। হিরো আলম বলেন, 'আমাকে নিয়ে প্রথম থেকেই মাথা ব্যথা সবার। আমি কেন এসেছি নির্বাচনে, এছাড়া হুজুররাও আমাকে নিয়েও ওয়াজ করা শুরু করেছে। হুজুররা ইসলামি কথাবার্তা বলবে, তারা কেন এসব বলবে। আমি নির্বাচনে গেলে দেশ অচল হয়ে যাবে তাহলে দেশের ভাল ভাল লোকেরা সংসদ চালায় তাহলে দেশের এই অবস্থা কেন? আমাদের মত অযোগ্য লোকদের দেশে যাওয়া উচিত তাহলে দেশ এগিয়ে যাবে, অযোগ্য লোকদের দিয়ে যদি দেশ অচল হয়, তবে আমাদের দিয়েই দেশ সচল হবে।' তিনি আরো বলেন, 'আমাদের প্রতিপক্ষরা আমাকে ভয় পায়, তাই তারা এমন ষড়যন্ত্র করে। আমার বাঙালীর একটা ধর্ম আছে, সেটা হল কেউ যদি উপরে উঠতে চায়, তাদের কিভাবে নিচে টেনে নামানো যায় সেই পায়তারা করে। প্রথমে জাতীয় পাটি থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও দলীয় মনোনয়ন পাননি হিরো আলম। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসন থেকে মনোনয়ন জমা দেন তিনি। মনোনয়নপত্রে সাধারণ ভোটারদের স্বাক্ষরে গড়মিল থাকার কারণে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়। এরপর গত ৩ ডিসেম্বর প্রার্থিতা ফিরে পেতে আপিল করেন তিনি। বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) তার আপিলের শুনানি পর তার প্রার্থিতা অবৈধ ঘোষণার সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply