sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ছোট পুঁজি নিয়েও রংপুরকে হারিয়ে দিলেন মোস্তাফিজ







রাজশাহীর দেয়া টার্গেটটা বড় ছিল না। কিন্তু সেই ১৩৬ রানের টার্গেটই রংপুরের সামনে পাহাড় সমান হয়ে দাঁড়ালো। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় জয়ের আশা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত হারতে হল মাশরাফিদের।


 মূলত মোস্তাফিজের কাছেই হেরেছে রংপুর। শেষ ওভারে রংপুরের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১০ রান। মোস্তাফিজের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে ননস্ট্রাইকে আসেন সেট ব্যাটসম্যান রাইলি রুশো। পরের চার বল ব্যাটে লাগাতেই ব্যর্থ হন ফরহাদ রেজা। যদিও পঞ্চম বলে উইকেট কিপারের হাতে বল রেখে এক রান নিয়ে নেন রুশো। শেষ বলে ছক্কা হাঁকালেও ম্যাচ গড়াতো সুপার ওভারে। কিন্তু রুশো সেটাও পারলেন না। এক রান নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল তাকে। আর রাজশাহীকে ৫ রানের স্বস্তির জয় এনে দিলেন মোস্তাফিজ। নিজের কোটার ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রান দেন ফিজ।

এরআগে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ক্রিস গেইলের সঙ্গে ওপেনিং করতে নেমে পড়েন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তবে ব্যর্থ হন তিনি। স্কোরবোর্ডে কোন অবদানই রাখতে পারেননি তিনি। ফিরেছেন শূন্য রানে। কামরুল ইসলাম রাব্বির এক ওভারে ২০ রান তোলা গেইল ফেরেন ২৪ রানে। এরপর মোহাম্মদ মিঠুনকে সঙ্গে নিয়ে দলকে এগিয়ে নেন রাইলি রুশো। ৩০ রানে মিঠুন আউট হয়ে গেলে ছন্দপতন হয় রংপুরের। যেখানে ৭১ রানে ছিল ২ উইকেট সেখানে ৯২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এরপর উইকেট ধরে রাখতে গিয়ে রানের গতি শ্লথ হয়ে যায়।

মিরপুরে টস জিতে রাজশাহীকে আগে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান রংপুর দলপতি মাশরাফি। শুরুর কাজটা নিজেই করে দিয়েছিলেন মাশরাফি। ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারে করা নিজের প্রথম বলেই মেহেদী মিরাজকে ফেরান তিনি। মুমিনুল হককেও বেশিদূর যেতে দেননি সোহগ গাজী। ১৪ রানে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়েন তিনি। এরপর পিচে সেট হতে থাকা সৌম্য সরকারকে ফিরিয়ে রাজশাহীর টপ অর্ডার ধসিয়ে দেন ম্যাশ।

জাকির হাসানকে সঙ্গে নিয়ে অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজ থিতু হচ্ছিলেন। কিন্তু রান আউটের খাড়ায় পড়ে তাকেও বিদায় নিতে হয়। সতীর্থদের ঠিকঠাক সমর্থন না পেলেও দলকে সম্মানজনক পুঁজি এনে দেন জাকির হাসান। ৪২ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান সংগ্রহ করেছে রাজশাহী।

স্কোর:
রাজশাহী কিংস: ১৩৫/৮ (২০)
মুমিনুল হক ১৪ (১৬)
মেহেদী হাসান মিরাজ ০ (১)
সৌম্য সরকার ১৮ (১৩)
মোহাম্মদ হাফিজ ২৬ (২৯)
জাকির হাসান ৪২* (৩৬)
ল্যরি ইভান্স ২ (৭)
রায়ান টেন ডসকেট  ১৪ (১০)
ইসুরু উদানা ৮ (৫)
আরাফাত সানি ১ (২)
কামরুল ইসলাম ১* (১)




বোলার:
সোহাগ গাজী (৩-০-২৫-১)
মাশরাফি মুর্তজা (৪-০-২২-২)
নাহিদুল ইসলাম (২-০-১৪-০)
নাজমুল ইসলাম অপু (২-০-১৪-০)
বিনি হাওয়েল (৩-০-২০-০)
শফিউল ইসলাম (৪-০-১৯-১)
ফরহাদ রেজা (২-০-১৭-২)

রংপুর রাইডার্স: ১২৯/৬ (২০)
ক্রিস গেইল ২৩ (১৪)
মাশরাফি মুর্তজা ০ (২)
মোহাম্মদ মিঠুন ৩০ (৩১)
আইলি রুশো ৪৪* (৪৬)
রবি বোপারা ১ (৫)
বিনি হাওয়েল ৪ (৬)
নাহিদুল ইসলাম ১৬ (১২)
ফরহাদ রেজা ০ (৪)

বোলার:
কামরুল ইসলাম (২-০-২২-২)
মেহেদী মিরাজ (৪-০-২৫-০)
ইসুরু উদানা (৪-০-২২-১)
মোস্তাফিজুর রহমান (৪-০-১৭-০)
আরাফাত সানি (২-০-১২-০)
মোহাম্মদ হাফিজ (৪-০-২২-২)

রাজশাহী কিংস ৫ রানে জয়ী।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply