sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » যে কারণে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে নামছে বাংলাদেশ




বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর পর খোজ মেজাজে রয়েছে টাইগাররা। প্রোটিয়াদের হারাানোর সুখস্মৃতি নিয়ে আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামছে মাশরাফি-সাকিবরা। আজকের ম্যাচের জন্য অপরিবর্তিত একাদশ রাখার পক্ষে টিম ম্যানেজমেন্ট। মূলত দুটি কারণে স্কোয়াডে পরিবর্তন আনতে চাইছে না নির্বাচকরা। প্রথমত, উইনিং কম্বিনেশনকে গুরুত্ব দেয়া। দ্বিতীয়ত, গত ম্যাচে প্রায় সব খেলোয়ারের আশা জাগানিয়া পারফরমেন্স। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ওভালে অনুষ্ঠিত হবে এই ম্যাচ। ওভালের উইকেটে ঘাসের ছোঁয়া থাকতে পারে। তবে ঘাস থাকলেও সেটি বাদামী হতে পারে। খুব বেশি পেস সহায়ক হবে বলে মনে করছে না টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই চার পেসার খেলানোর ভাবনা এখন পর্যন্ত নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং অর্ডারে বেশ কজন বাঁহাতি দেখে অফ স্পিনে বাড়তি বিকল্প হিসেবে নেয়া হয়েছিল অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেনকে। নিউজিল্যান্ডের সম্ভাব্য ব্যাটিং অর্ডারেও প্রথম ছয়জনের মধ্যে তিন জন বাঁহাতি। মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে মোসাদ্দেকের অফ স্পিনও তাই কাজে লাগাতে চায় দল। গত ম্যাচে ব্যাট হাতেও শেষ দিকে গুরুত্বপূর্ণ একটি ইনিংস খেলেছেন মোসাদ্দেক। এ কারণে সাব্বির হোসেনের একাদশে ফেরাটা সহজ হচ্ছে না। সাব্বির ফিরতে হলে মিথুনকে বাদ দিতে হবে। কিন্তু উইনিং কম্বিনেশন গুরুত্ব দেয়ায় সেই সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। পিঠের চোট কাটিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলতে নেমে শুরুতে বোলিং বিবর্ণ থাকলেও পরে দারুণভাবে ফিরে আসেন সাইফউদ্দিন। ঘাসের উইকেটে তার গতি বাড়তি সুবিধা দেবে। তাই তারও খেলা নিশ্চিত। ওই ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা জানিয়ে দেন, ডেথ ওভারে সাইফই এখন দলের প্রথম পছন্দ। গত ম্যাচের মতো আজকেও দর্শক হয়ে থাকতে হবে ইনফর্মার লিটন দাসকে। কারণ গত ম্যাচে সেৌম্য ভালো করেছেন। সব মিলিয়ে আজ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে কিউইদের মোকাবেলা করতে নামবে মাশরাফিরা। এদিকে দুর্দান্ত জয় দিয়ে আসর শুরু করেছে নিউজিল্যান্ডও। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকাকে রীতিমতো বিধ্বস্ত করেছেন কিউইরা। নিজেদের ওপর আস্থা রেখে খেলতে নামবেন তারাও। বাংলাদেশ সম্ভাব্য একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোসাদ্দেক হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক) ও মোস্তাফিজুর রহমান।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply