sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » সেমিফাইনালে আজ মুখোমুখি ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া




বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আজ স্বাগতিক ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় বার্মিংহামের এজবাস্টনে মুখোমুখি হবে ক্রিকেটের এ দুই অভিভাবক। লীগ পর্বে অজিরা যতটা সহজে প্রথম সেমির টিকিট নিশ্চিত করেছিল, তার তুলনায় স্বাগতিকদের বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। তবে, শেষ দুই ম্যাচে জয় পাওয়ায় সেমিফাইনালে চ্যালেঞ্জটা নিতে যে প্রস্তুত তা বলাই যায়। ম্যাচটি ইংল্যান্ডের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। তিনবারের রানার্সআপরা ২৭ বছর পর সেমির টিকিট পেয়েছে। ১৯৯২ আসরের পর বিশ্বকাপের কোন আসরে অজিদের হারাতে পারেনি ইংলিশরা। চলতি আসরেও ৬৪ রানে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া। তাই আজ জিততে পারলে দীর্ঘ বন্ধ্যত্ব কাটবে মরগানদের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ ১২টি ওয়ানডের ১০টিই জিতেছে ইংল্যান্ড। আজ যেখানে খেলা সেই এজবাস্টনে ১৯৯৩ সালের পর কোনো ওয়ানডে জেতেনি অস্ট্রেলিয়া। সেমিফাইনালের লাইনআপ চূড়ান্ত হওয়ার পরই সবার মনের কথাটা বলে দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, ‘বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচের চেয়ে ভালো কিছু আর হতে পারে না।’ যথার্থই বলেছেন ফিঞ্চ। তবে ক্রিকেটের সবচেয়ে বনেদি দ্বৈরথটা ফাইনালে হলে নিঃসন্দেহে আরও ভালো হতো। কিন্তু লিগপর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে অস্ট্রেলিয়া হেরে না বসলে সেই সম্ভাবনা ছিল যথেষ্ট। কিন্তু যা হয়নি তা নিয়ে আর কথা বাড়িয়ে লাভ নেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের যাত্রা শুরু যে দুটি দলের হাত ধরে, তাদের সাক্ষাৎ যেখানেই হোক উত্তেজনা, রোমাঞ্চের রসদে টান পড়ে না কখনও। বিশ্বকাপের আসরে ফেভারিট খোঁজাটা হবে বোকামি। অন্তত গতকালকের ম্যাচে কিউইদের কাছে ভারতের হার তাই প্রমাণ দেয়। তবে, মরগানদের জন্য এ ম্যাচ সত্যিই যে কঠিন পরীক্ষার। কেননা, পাঁচবারের রেকর্ড চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া সেমিফাইনালে যে কখনো হারেনি। দিন শেষে দুই পুরনো শত্রুর শ্রেষ্ঠত্বের মীমাংসা হবে মাঠেই। সেখানে শক্তির বিচারে কেউ কারও চেয়ে কম নয়। অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চের মতো ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো ও জেসন রয়ও আছেন আগুনে ফর্মে। তবে জো রুট, ইয়ন মরগ্যান, জস বাটলার ও বেন স্টোকসকে নিয়ে সাজানো ইংল্যান্ডের মিডলঅর্ডার দৃশ্যত বেশি ভয়ংকর। এখানে একটু পিছিয়ে অস্ট্রেলিয়া। চোটের থাবায় উসমান খাজা ছিটকে যাওয়ায় অপরীক্ষিত পিটার হ্যান্ডসকাম্বকে আজ খেলাতে বাধ্য হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। স্টিভেন স্মিথ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও নিজেদের সেরা ছন্দে নেই। বোলিংয়ে আবার এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের আর্চার, উডদের চেয়ে ঢের ভয়ংকর মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স। নয় ম্যাচে এরই মধ্যে ২৬ উইকেট নিয়েছেন স্টার্ক। আজ এক উইকেট পেলেই পূর্বসূরি গ্লেন ম্যাকগ্রাকে ছাড়িয়ে এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারে নতুন রেকর্ড গড়বেন স্টার্ক। তবে রেকর্ড নয়, অস্ট্রেলিয়ার গতি তারকার ধ্যান-জ্ঞান এখন শিরোপা। অন্যদিকে দীর্ঘ প্রস্তুতি কতটা বদলাতে পেরেছে ইংল্যান্ডকে, আজ তার আসল পরীক্ষা। সেই পরীক্ষায় বাগড়া দিতে পারে বৃষ্টি। তবে বার্মিংহামে আজ বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকলেও তাতে ম্যাচ ভেসে যাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। এছাড়া রিজার্ভ ডে তো আছেই।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply