sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ২৩ বছর পর ক্রিকেটবিশ্ব পাচ্ছে নতুন চ্যাম্পিয়ন




২৩ বছর পর ক্রিকেটবিশ্ব পাচ্ছে নতুন চ্যাম্পিয়ন

বৃহস্পতিবার অজিদের দেয়া ২২৪ রানের লক্ষ্য ছুঁতে ১০৭ বল বাকি ছিল ইংল্যান্ডের। যার ফলে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে এই প্রথম হার দেখতে হলো অস্ট্রেলিয়াকে! ঘুরিয়ে বললে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে ফাইনালে চলে গেল ইংল্যান্ড। আর এতেই শেষ হলো দীর্ঘ ২৭ বছরের অধীর অপেক্ষার। হ্যাঁ পাঠক, সেই ১৯৯২ সালে সর্বশেষ ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছিল ইংল্যান্ড। এরপর আর সেমিতে খেলার `সৌভাগ্য` হয়নি তাদের। কিন্তু আজ অস্ট্রেলিয়াকে দুমড়েমুচড়ে দিয়ে আট উইকেটে হারিয়ে সত্যিকারের ফেবারিটের মতো ফাইনালে উঠে এলো স্বাগতিকরা। গুণে গুণে ঠিক ২৭ বছর পর! এ তো গেলো ইংলিশ সমর্থকদের হিসেব। কিন্তু নিরপেক্ষ দর্শকের কাছে অপেক্ষাটা ২৩ বছরের। কেননা, ১৯৯৬ বিশ্বকাপেই সর্বশেষ নতুন কোনো চ্যাম্পিয়ন পেয়েছিল ক্রিকেটবিশ্ব। সবাইকে চমকে দিয়ে শিরোপা নিয়ে উৎসব করেছিল দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। এরপর আর নতুন কোনো চ্যাম্পিয়ন পাওয়ার সম্ভাবনাই জাগেনি বহুদিন। বিশ্বকাপ জেতা দলগুলোরই কেউ না কেউ প্রতিবারই যে ফাইনাল খেলছিল। তবে এর মাঝেও নতুন কোনো চ্যাম্পিয়ন পাওয়ার সুযোগ এসেছিল গেল বিশ্বকাপেই, ২০১৫ সালে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডকে সে ফাইনালে হেসে খেলে হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার আবারো ফাইনাল খেলছে কিউইরা। টানা দ্বিতিয়বার। তাই আরেকবার সেরা হওয়ার সুযোগ থাকছে ব্ল্যাকক্যাপদের সামনে। অন্যদিকে সেই অস্ট্রেলিয়াকেই আজ হেসেখেলে হারাল ইংল্যান্ড। জেসন রয় আম্পায়ারের অবিশ্বাস্য ভুল সিদ্ধান্তের শিকার না হলে ম্যাচটা ৩৩তম ওভার নয়, আরও অনেক আগেই শেষ হয়ে যেত। তবুও মরাগান আর রুট মিলে অজিদের সঙ্গে যা করেছেন, তাও কম কিসে? এর আগে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসেই ভয়ংকর মনে হয়েছিল এজবাস্টনের উইকেটকে। ১৪ রানে ধসে পড়েছিল অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার। স্টিভ স্মিথের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টাতেও অলআউট এড়াতে পারেনি, এক ওভার হাতে রেখে ২২৩ রানেই গুটিয়েছিলো অজিরা। প্রথম সেমিফাইনালে ২৩৯ রান করেও ১৮ রানের জয় পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। এমনকি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে সবচেয়ে কম রান করেও জয়ের রেকর্ড আছে অস্ট্রেলিয়ার। সেবারের সেই ২০৭ রানের চেয়ে তো আজ ১৬ রান বেশিই করেছে অজিরা। তবে এ আলোচনা থামিয়ে দিতে খুব বেশি সময় নেয়নি ইংলিশরা। অজিদের মূল অস্ত্র মিচেল স্টার্কের প্রথম ৩ ওভারেই ২৩ রান তুলে নিয়ে ইংল্যান্ড বুঝিয়ে দিয়েছে আজ অন্তত ফিঞ্চদের দাপট দেখাতে দেবে না। আর সেই ধারাবাহিকতাই প্রথম পাওয়ার প্লেতেই পঞ্চাশ পেয়ে গেল ইংল্যান্ড। জেসন রয় চোট থেকে ফেরার পর আবারও ভয়ংকর রূপ ফিরে পেয়েছে ইংল্যান্ডের ওপেনিং জুটি। আজ তাদের সেরা রূপটাই দেখল অস্ট্রেলিয়া। ১২৪ রানের ঝোড়ো জুটি (১০৪ বলে) গড়ে বেয়ারস্টো (৩৪) আউট হলেও ৬৫ বলে ৯ চার ও ৫ ছক্কায় ৮৫ রান করে থামে রয়ের তাণ্ডব। ইংল্যান্ডের রান তখন ১৪৭। ইনিংসের বয়স ২০ ওভারও হয়নি। ১৮২ বলে মাত্র ৭৭ রান দরকার ইংল্যান্ডের। তবে জো রুট (৪৯) ও ইয়ন মরগান (৪৫) সেই লক্ষ্যটা ছুঁয়েছেন মাত্র ৭৫ বলে। দুজনেই মেরেছেন ৮টি করে চার। যার ফলে ২৭ বছরের অপেক্ষা ফুরালো ইংলিশদের। ১৯৯২ বিশ্বকাপের পর আবার ফাইনালে উঠল ইংল্যান্ড। আর তাতে নিশ্চিত হলো আরও একটি ব্যাপার। সেটা হলো- অবশেষে ৪৪ বছরে এসে ষষ্ঠ বিশ্বচ্যাম্পিয়নের দেখা পাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্ব।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply