sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » অশোক (উদ্ভিদ)





 
অশোক (উদ্ভিদ)

অশোক
Ashoka tree
Sita-Ashok (Saraca asoca) flowers in Kolkata W IMG 4146.jpg
প্রস্ফুটিত অশোক ফুল
সংরক্ষণ অবস্থা

সংকটাপন্ন (আইইউসিএন ২.৩)
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: উদ্ভিদ
(শ্রেণীবিহীন): সপুষ্পক উদ্ভিদ
(শ্রেণীবিহীন): Eudicots
(শ্রেণীবিহীন): Rosids
বর্গ: Fabales
পরিবার: Fabaceae
গণ: Saraca
প্রজাতি: S. asoca
দ্বিপদী নাম
Saraca asoca
(উইলিয়াম রক্সবার্গ) Carl Ludwig Willdenow[১]
প্রতিশব্দ[১]
Jonesia asoca Roxb.
Jonesia confusa Hassk.
Jonesia pinnata Willd.
Saraca confusa (Hassk.) Backer
Saraca indica'' sensu Richard Henry Beddome, non কার্ল লিনিয়াস
অশোক বৈজ্ঞানিক নাম: Saraca indica), (ইংরেজি: Yellow Ashok, Yellow Saraca) হচ্ছে Fabaceae পরিবারের এক প্রজাতির বৃক্ষ।[২]



বিবরণ
অশোক মাঝারি আকৃতির ছায়াদানকারী চিরসবুজ বৃক্ষ। এদের পাতার রঙ গাঢ়-সবুজ। পাতাগুলো দীর্ঘ, চওড়া ও বর্শাফলাকৃতির। কচিপাতা কোমল, নমনীয়, ঝুলন্ত ও তামাটে। ফুল ফোটার প্রধান মৌসুম বসন্তকাল। তবে হেমন্ত অবধি এ গাছে ফুল ফোটতে দেখা যায়। তবে শীতকালেও এরা অল্প সংখ্যায় ফোটে থাকে। অশোক ফুল গাছের কান্ড থেকে ফোটে। ফুল আকারে ছোট, কিন্তু বহুপৌষ্পিক, ছত্রাকৃতি মঞ্জরি আকারে বড়। অজস্র ফুলের সমষ্টি অশোকমঞ্জরি মৃদু গন্ধযুক্ত এবং বর্ণ ও গড়নে আকর্ষণীয়। তাজা ফুলের রং কমলা, কিন্তু বাসি ফুল লাল রঙ ধারণ করে। পরাগকেশর দীর্ঘ। ফল বড়সড় শিমের মতো চ্যাপ্টা, পুরু এবং ঈষৎ বেগুনি রঙের।[৩]

রবীন্দ্রনাথ কবিতায় লিখেছিলেন, পুরাকালে নাকি অশোকবৃক্ষে নারীর চরণস্পর্শে ফুল জেগে উঠতো। সিদ্ধার্থ লুম্বিনীর এক অশোকতরুর নিচে জন্মেছিলেন। অশোক গাছ হিমালয়ের পাদদেশবর্তী অঞ্চলে লভ্য। বলধা গার্ডেনের সংরক্ষিত অংশটিতে (সাইকি) একটি অশোক গাছ আছে।

প্রজাতি
আলোচ্য অশোক ছাড়াও ভারতে এবং বাংলাদেশে রাজ অশোক এবং স্বর্ণ অশোক নামে আরও দুই রকমের অশোক গাছ দেখা যায়।[৩] অশোকের একটি প্রজাতি রয়েছে যাদের ফলের রঙ হলুদ। এর বৈজ্ঞানিক নামঃ Saraca thaipingensis.

বংশবিস্তার
অশোক ফলের বীজ থেকে সহজেই চারা জন্মায়। তবে চারার বৃদ্ধি মন্থর।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply