sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » অপারেটরদের যে ক্ষমতা ফিরিয়ে দিচ্ছে বিটিআরসি




 

অপারেটরদের যে ক্ষমতা ফিরিয়ে দিচ্ছে বিটিআরসি নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের ক্ষমতা আবারো মোবাইল অপারেটরদের কাছেই ফিরিয়ে দিচ্ছে বিটিআরসি। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বলছে, দুই বছর ধরে নানা দেনদরবার করেও লাইসেন্স পাওয়া তিন প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে কোন টাওয়ারই নির্মাণ করানো যায়নি। অন্যদিকে, এই সময়ে টাওয়ার স্থাপনের অনুমতি ছিলো না মোবাইল অপারেটরদেরও। নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ জটিলতায় নির্ধারিত সময়ে ফাইভ জি সেবা চালু নিয়ে শঙ্কায় মোবাইল অপারেটররা। তাই বাধ্য হয়ে মোবাইল অপারেটরদেরই নেটওয়ার্কের সম্প্রসারণে অনুমতি দিচ্ছে বিটিআরসি। পরিবেশের সুরক্ষা, উন্নত সেবা দেয়ার লক্ষ্যে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন টাওয়ার স্থাপনে ২০১৮ সালের নভেম্বরে চার প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেয় বিটিআরসি। সারাদেশে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণে পাঁচ বছরের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়। এদের মধ্যে লাইসেন্স পাওয়ার আগে থেকেই টাওয়ার শেয়ারিং কার্যক্রম চালু আছে ইডটকো'র। তবে সেবা সংক্রান্ত চুক্তি-এসএলএ নিয়ে জটিলতায় দুই বছরেও কোনো টাওয়ারই নির্মাণ করেনি তিন প্রতিষ্ঠান। জটিলতা নিরসনে বিটিআরসি এসএলএ নির্ধারণ করে দিলেও তাতে তিন প্রতিষ্ঠান সাক্ষর করেনি। এদিকে গ্রাহক অনুপাতে এমনিতেই পর্যাপ্ত তরঙ্গ নেই অপারেটরদের। তার উপর দুই বছর ধরে বন্ধ নতুন টাওয়ার স্থাপন কার্যক্রম। করোনাকালে ৪২ লাখ গ্রাহক হারিয়ে বড় ধরনের চাপে মোবাইল অপারেটররা। রবির হেড অব রেগুলেটরি অ্যান্ড কর্পোরেট আফেয়ার্স সাহেদ আলম বলেন, 'আমরা যে রোড ম্যাপ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছিলাম সেখান থেকে অলরেডি আমরা পিছিয়ে গেছি।' নিরবচ্ছিন্ন টেলিকম সেবা অব্যাহত রাখতে মোবাইল অপারেটরদের নেটওয়ার্ক উন্নয়নের অনুমতি দেয়া হচ্ছে বলে জানালেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক। তিনি বলেন, 'অপারেটররা আমাদের কাছে সময় চেয়েছে আমরা সময় দিয়েছি। কিন্তু এখন তো আর সময় দেয়া যাবে না।' বর্তমানে প্রায় ৩৭ হাজার টাওয়ারের মাধ্যমে ১৬ কোটির বেশি গ্রাহককে সেবা দিচ্ছে চার মোবাইল অপারেটর।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply