sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ নামিয়েছিলেন সিদ্ধার্থ? পরিচারকের দাবিতে নয়া মোড়




 

সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ নামিয়েছিলেন সিদ্ধার্থ? পরিচারকের দাবিতে নয়া মোড় সিদ্ধার্থ পিঠানি প্রথম ব্যক্তি যিনি সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর দরজা খুলে তাঁর ঘরে ঢুকেছিলেন। ফাইল চিত্র। সুশান্ত মৃত্যুরহস্যের তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এরই পাশাপাশি সম্প্রতি সুশান্তের পরিচারক নীরজের করা দাবি নিয়ে সুশান্তের মৃত্যু প্রসঙ্গে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন মাথাচাড়া দিল। সুশান্তের বন্ধু ও ক্রিয়েটিভ ম্যানেজার সিদ্ধার্থ পিঠানি প্রথম ব্যক্তি যিনি সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর দরজা খুলে তাঁর ঘরে ঢুকেছিলেন। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে সম্প্রতি এ রকমই দাবি করেছেন সুশান্তে‌র পরিচারক নীরজ। তিনি আরও জানিয়েছেন, সিদ্ধার্থই দড়ি কেটে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে সুশান্তের দেহ নীচে নামিয়ে এনেছিলেন। সুশান্তের পরিচারকের কাজ করতেন নীরজ। মৃত্যুর আগে তাঁর সঙ্গেই শেষবারের মতো কথা হয়েছিল সুশান্তের। নীরজের ধারণা, সুশান্ত নিশ্চয় কোনও অসুস্থতায় ভুগছিলেন। তিনি বলেছেন, ‘‘মৃত্যুর ঘণ্টা দেড়েক আগে আমাকে এক গ্লাস ঠাণ্ডা জল দেওয়ার জন্য বলেছিলেন। আমার মনে হয়েছিল, তাঁর শরীরে কোনও অস্বস্তি হচ্ছিল সে সময়।’’ নীরজের সাম্প্রতিক দাবির পর, সিদ্ধার্থের বলা কিছু কথার সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠল। এর আগে সিদ্ধার্থ পিঠানি দাবি করেছিলেন, সুশান্তের দেহ দেখে তাঁরা প্রহরীকে খবর দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই দাবি আগেই খারিজ করেছিলেন ফ্ল্যাটের প্রহরী। রিয়ার সঙ্গে সিদ্ধার্থের যোগাযোগও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সে সবের মধ্যেই নীরজের দাবি অন্য মাত্রা যোগ করল সুশান্ত মৃত্যু রহস্যে। Advertisement Powered By PLAYSTREAM সিদ্ধার্থ পিঠানির ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যেই সংশয় প্রকাশ করেছেন সুশান্তের বাবার আইনজীবী বিকাশ সিংহ। তাঁর কথায়, সিদ্ধার্থ ‘সন্দেহজনক’ ও ‘খুব বুদ্ধিমান অপরাধী’। বিকাশ জানিয়েছেন, শুরুর দিকে সুশান্তের পরিবারকে সাহায্য করছিল সিদ্ধার্থ। কিন্তু রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সুশান্তের বাবা কে কে সিংহ এফআইআর করার পরেই সিদ্ধার্থর আচরণ বদলে যায় বলে অভিযোগ বিকাশের। আরও পড়ুন: রোহিনী, দিশা, অঙ্কিত... বার বার পাল্টে গিয়েছে সুশান্তের ম্যানেজার শুধু তাই নয়, মৃত্যুর পর সুশান্তের দেহ নামানো নিয়ে নীরজের সাম্প্রতিক দাবির প্রেক্ষিতে বেশ কয়েকটি প্রশ্নও তুলেছেন আইনজীবী বিকাশ। তিনি বলেছেন, ‘‘সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব এখনও মেলেনি। সুশান্তের ঘরের ভিতর কী চলছে, তা জানার যদি এতই তাড়া ছিল, তা হলে এত ক্ষণ কেন করেননি? সুশান্তের দিদি যখন ১০ মিনিট দূরেই ছিলেন, তখন তাড়াহুড়ো করে কেন দেহ নামিয়ে আনা হল?’’ রিয়ার বিরুদ্ধে সুশান্তের অর্থ তছরুপের অভিযোগে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। সেই মামলাতে সিদ্ধার্থকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি। সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে চাপানউতোর চলছে। বুধবারই সুশান্তের মৃত্যুরহস্যের তদন্তভার সিবিআইকে দেওয়া নির্দেশ দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply