sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ল্যাঙ্গারের আদর্শ হলিউড তারকা উইল স্মিথ




 

ল্যাঙ্গারের আদর্শ হলিউড তারকা উইল স্মিথ ব্যক্তিজীবনে হলিউড তারকা উইল স্মিথের একটি উক্তি বেশ মেনে চলেন অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার। আর সেভাবে নিজেকে সবসময়ই প্রস্তুত রাখেন বলে জানান তিনি। লকডাউন থেকে ফিরে তার দল অস্ট্রেলিয়াও যে কোনো চ্যালেঞ্জের জন্যই প্রস্তুত আছে। আর নতুন নিয়মগুলোকে দেখছেন চ্যালেঞ্জ হিসেবে। সংবাদমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার। বাকি দুই ফরম্যাট নিয়ে সন্তুষ্ট থাকলেও, ওয়ানডে নিয়ে এখনও স্বস্তিতে নেই। তাই ইংলিশদের মাটিতে নতুন করে শুরু করতে চান অজি কোচ। করোনা বিদায় না হলেও, ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলো যার যার মতো খুঁজে নিচ্ছেন লকডাউনের পাসওয়ার্ড। ২২ গজে ফেরার বেলাতেও প্রথম ইংলিশরা। উইন্ডিজের বিপক্ষে একটা সিরিজ শেষ করেছে। পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজটাও চলমান। এবার চির শত্রুদের মাঠেই ফিরতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট। ৫ মাস পর মাঠে ফিরে কোন কোন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে অজিরা, কে জানে! তবে স্বভাবসুলভ ইতিবাচকতা কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের কণ্ঠে। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমি একটা বিষয়ে নিশ্চিত, সেটা হচ্ছে আমরা একটা অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি। ব্যক্তিজীবনে আমি অভিনেতা উইল স্মিথের একটি উক্তি মেনে চলি। তা হলো, যে কোনো মুহূর্তে প্রস্তুতি নিতেও আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে। দলটা সেভাবেই প্রস্তুত আছে। ইংল্যান্ড সফর নিশ্চিত। আশা করি গ্রীষ্মে ভারতও এখানে আসবে। করোনাকালে ক্রিকেটে আমদানী হয়েছে নতুন নতুন সব নিয়মের। আচরণবিধিতে শর্তও বেড়েছে। কিভাবে মানিয়ে নেবেন ক্যাঙ্গারুরা? উত্তর দিতে গিয়ে নিজেই কেপটাউন কেলেঙ্কারির পুরোনো ক্ষতটায় খোঁচা দিলেন ল্যাঙ্গার। তিনি বলেন, দু'বছর আগেও আমরা একটা সংকটের মাঝে পড়েছিলাম। এখন আরেকটা ভিন্ন ধরণের সংকট। তবে এই খারাপ সময়গুলো নিজেদের চিনতে শেখায়। এই লম্বা সময়ের লকডাউনে ক্রিকেটাররা ভালো একটা বিশ্রাম পেয়েছে। তাদের এনার্জি নিশ্চয় আগের চেয়ে অনেক বাড়বে এখন। টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি নিয়ে স্বস্তি থাকলেও, ওয়ানডে দলটা নিয়ে এখনও তৃপ্ত নন। নতুন শুরু থেকেই শুরু করতে চান এই অজি কোচ। ল্যাঙ্গার বলেন, টেস্ট আর টি-টোয়েন্টিতে আমাদের দল একটা আদর্শ পথ খুঁজে পেয়েছে। কিন্তু ওয়ানডে দলটা এখন সে অবস্থানে নেই। দুইটা বিশ্বকাপ আগে আমরা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ছিলাম। সেই ছন্দটা আমাদের খুঁজে নিতে হবে। তবে খারাপ সময়ের পরপরই ভালো কিছু আসে। সবশেষ অ্যাশেজে ট্রফিটা দখলে রাখাই যার বড় প্রমাণ। থ্রিলায়নদের বিপক্ষে ৪ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর তিনটি করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে খেলবে অস্ট্রেলিয়া।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply