sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » সমাধান হচ্ছে ফ্রিল্যান্সারদের সমস্যা




সমাধান হচ্ছে ফ্রিল্যান্সারদের সমস্যা রাষ্ট্রীয় কোন নীতিমালা না থাকায় হরহামেশাই প্রতারণা শিকার হন অনেক ফ্রিল্যান্সার। অর্থ লেনদেনের মাধ্যম পেপ্যাল না থাকায় ব্যাংকে দিনের পর দিন আটকে থাকে তাদের কষ্টার্জিত অর্থ। ডলার ও ইউরো বিনিময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের রেট মানে না বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। এমন নানামুখী সমস্যায় জর্জড়িত দেশের ফ্রিল্যান্সাররা। তবে, ফ্রিল্যান্সিংকে পেশা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। তথ্য-উপাত্ত বলছে, বর্তমানে বিশ্বে আউটসোর্সিংয়ের বাজার এক ট্রিলিয়ন ডলারের। যেখানে থেকে বছরে ১০ কোটি ডলার আয় করছেন দেশের সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার। যদিও এই আয় কিংবা পেশা কোনটিরই নেই রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি। এ অবস্থায় আউটসোর্সিংয়ে আরও শক্ত ভিত তৈরি করতে ফ্রিল্যান্সিংকে পেশা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ খাতের আয়কে করমুক্ত রাখার আভাস দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, তারা যে আয় করছেন, সেখান থেকে কর না নিলেও তা যেন সরকারের হিসাবে ঢোকে সেই উদ্যোগই নেয়া হয়েছে। তবে, বিদ্যামান সমস্যা সমাধান না করে শুধু পেশার স্বীকৃতি চান না ফ্রিল্যান্সাররা। তারা বলছেন, এ খাতের সবচেয়ে বড় সমস্যা অর্থ স্থানান্তর। দেশে পেপ্যাল না থাকায় ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ের মাধ্যমে অর্থ আনতে পার ট্রানজেকশনে খরচ হয় ২০ ডলার পর্যন্ত। আলাদাভাবে দিতে হয় ব্যাংকের সার্ভিস চার্জ। ফ্রিল্যান্সারদের অভিযোগ, এরপরও ডলার কিংবা ইউরোর নির্ধারিত বিনিময় মূল্য দেয় না বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। ভোগান্তি রয়েছে ইন্টারনেট সেবা নিয়ে। আবার কাজ বুঝে নিয়েও পাওনা পরিশোধ করে না অনেক বিদেশি ক্রেতা। এসব সমস্যা সমাধানের পথ রেখেই প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ার কথা জানালেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম। ফ্রিল্যান্সাররা যেসব প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়েন সেসব সমস্যা চিহ্নিত করেই সরকার কাজ করছে বলে জানান তিনি। বর্তমানে আউটসোর্সিংয়ে কর্মী সরবরাহে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে বাংলাদেশ






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply