sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রণক্ষেত্র বেলারুশ, দেশ ছাড়লেন বিরোধীদলীয় নেত্রী




 

রণক্ষেত্র বেলারুশ, দেশ ছাড়লেন বিরোধীদলীয় নেত্রী সরকারবিরোধী বিক্ষোভে রণক্ষেত্র বেলারুশের রাজধানী মিনস্ক। রাতভর পুলিশের সঙ্গে বিরোধীদের সংঘর্ষে বেশ ক’জন আহত হয়েছেন। চলছে ধরপাকড়ও। বিক্ষোভ দমনে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কা। এদিকে, স্বৈরশাসক হিসেবে পরিচিত লুকাশেঙ্কাকে চীন, রাশিয়া, কাজাখস্তানসহ বেশ কিছু দেশ সমর্থন দিলেও নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি। আন্দোলনকারীদের ওপর দমন-পীড়নের ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। এমন অবস্থায় নিরাপত্তা জনিত কারণে বেলারুশ ছেড়ে লিথুনিয়ায় আশ্রয় নিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেত্রী ভিতলানা টিখানোভস্কায়া। নির্বাচনের পর দিন সোমবারও বেলারুশ পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয় সরকারবিরোধীরা। রোববার (৯ আগস্ট) নির্বাচনে নজিরবিহীন ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে প্রতিবাদ জানান তারা। ১৯৯৪ সাল থেকে টানা ক্ষমতায় থাকা স্বৈরশাসক প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীরা শ্লোগান দিলে চড়াও হয় পুলিশ। এসময় কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। রণক্ষেত্রে পরিণত হয় রাজধানী মিনস্ক। সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে অন্যান্য শহরেও। কোথাও কোথাও পুলিশের বিরুদ্ধে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলে বিক্ষোভকারীরা। আন্দোলনকারীরা বলছেন, পুলিশ নিরীহ মানুষকে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম করা হয়েছে। ৮০ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে নিজের জনগণকে এত ভয় পান কেন তিনি? নির্বাচনে ৮০ শতাংশের বেশি ভোট পাওয়ার দাবি করে ষষ্ঠ বারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন লুকাশেঙ্কা। যদিও নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ করে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছেন সাবেক শিক্ষক বিরোধী নেত্রী ভিতলানা টিখানোভস্কায়া। এই বিক্ষোভের মধ্যেই তিনি দেশ ত্যাগ করেছেন, এমন খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি। ভিতলানা সোমবার ১০ তারিখ লিথুনিয়ায় অবস্থান করছেন বলে নিশ্চিত করেছেন সে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এই বিরোধীদলীয় নেত্রী নিরাপদে আছেন বলেও জানানো হয়েছে। তবে প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কার দাবি, বিদেশি শক্তির মদদেই এই বিক্ষোভ হচ্ছে। কোনোমতেই সরকার মাথা নত করবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দেন তিনি। তিনি বলেন, ২৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের হাত পা ভেঙে গেছে। তাদেরকে নির্মমভাবে মারা হয়েছে। তার জবাব দিতেই আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ চড়াও হয়েছে। এখন আপনারা কাঁদছেন কেন? আমরা আমাদের দেশকে কখনোই ধ্বংস হতে দেব না। কেউ তার চেষ্টা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে। এদিকে, পোল্যান্ডের ওয়ারসতে অবস্থিত বেলারুশ দূতবাসের সামনেও বিক্ষোভ হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার নির্যাতনের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পোল্যান্ড। নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্র। হোয়াইট হাউজের প্রেস ব্রিফিংয়ে শান্তিপূর্ণভাবে বেলারুশ নাগরিকদের অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি তাদের পুলিশী শক্তি প্রয়োগ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানানো হয়। তবে আবারো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় লুকাশেঙ্কাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। স্বৈরাচারী এ শাসককে সমর্থন দিয়েছেন চীন, কাজাখস্তান, উজবেকিস্তান, আজারবাইজানের নেতৃবৃন্দও।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply