sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » গুগল-ফেসবুকের আধিপত্য নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাজ্যে আইন জারি




গুগল-ফেসবুকের আধিপত্য নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাজ্যে আইন জারি

গুগল এবং ফেসবুকের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে নেট দুনিয়ায় একতরফা আধিপত্য বিস্তার করে ক্ষমতার অপব্যবহারের। এমন অবস্থায় তাদের আধিপত্য কমাতে নতুন আইন জারি করছে যুক্তরাজ্য। যা আগামী বছর থেকেই দেশটিতে কার্যকর হবে। দেশটির কম্পিটিশন অ্যান্ড মার্কেটস অথরিটি (সিএমএ) এর তথ্য বলছে, ২০১৯ সালে অনলাইনে বিজ্ঞাপন বাবদ ব্যয় হয়েছে ১৮ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে ৮০ শতাংশ বিজ্ঞাপন ব্যয়ের তথ্য চেয়েছিল সিএমএ। নতুন আইনের মাধ্যমে ছোট ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো একদিকে লাভবান হবে অন্যদিকে ব্যক্তিগত তথ্যের ওপর আরও বেশি নিয়ন্ত্রণ পাবে গ্রাহকরা। একই সঙ্গে নিশ্চিত করা হবে যাতে বড় বড় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলো যেন গণমাধ্যমকে চাপ দিতে না পারে। এদিকে, যুক্তরাজ্য ও অন্যান্য দেশ স্বল্প সংখ্যক প্রযুক্তি কোম্পানির আধিপত্য বিস্তারের মনোভাব ডিজিটাল খাতের প্রবৃদ্ধি কমানো, উদ্ভাবনের গতি কমানো, তাদের ওপর নির্ভরশীল লোকদের ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর নেতিবাচক প্রভাবের মতো বিষয়গুলো নিয়ে একমত হয়েছে। এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে নতুন যুগের বিকাশমান প্রযুক্তিকে মুক্ত ঘোষণা করার সময় এসে গেছে বলে জানান দেশটির ডিজিটাল সেক্রেটারি অলিভার ডাউডেন। নতুন এ আইন অনুযায়ী, যেসব ক্ষেত্রগুলোতে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের অর্থায়ন করা হলে তার সেবাগুলো কিভাবে দেয়া হচ্ছে এবং প্রতিষ্ঠানগুলো কিভাবে গ্রাহকদের তথ্য ব্যবহার করছে সে সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে তথ্য দিতে হবে। ফলে প্রতিষ্ঠানগুলো এখন থেকে ভাবতে শুরু করবে যে, গ্রাহকরা কোন ধরনের বিজ্ঞাপন গ্রহণ করবে। আর না করলে তার বিকল্প বিজ্ঞাপণ কি হবে তা নিয়েও। এবং প্রতিষ্ঠানগুলোকেও বিরত থাকতে হবে গ্রাহকদের ওপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করা থেকে। নতুন এই আইনটি কম্পিটিশন অ্যান্ড মার্কেটস অথরিটি কার্যকর করবে। এ ইউনিটকে প্রযুক্তিনির্ভর প্রতিষ্ঠানগুলোর সিদ্ধান্ত স্থগিত, অবরোধ, পাল্টে দেয়া এবং আইন অমান্য করলে আর্থিক জরিমানা করার ক্ষমতা দেয়া হবে। অবশ্য, ব্রিটিশ সরকার এবং ডিজিটাল বিজ্ঞাপণের নীতি নির্ধারণী প্রতিষ্ঠান সিএম‘র সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে বেশ আগেভাগেই জানিয়েছিল গুগল এবং ফেসবুক। সুত্র: রয়টার্স






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply