sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » তারা নির্বাচন চুরি করছে': ট্রাম্প




  1. তারা নির্বাচন চুরি করছে': ট্রাম্প

    প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তার প্রতিপক্ষ কারচুপির মাধ্যমে নির্বাচন চুরির চেষ্টা করছে। ওয়াইট হাউসে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলন তিনি কোন প্রমাণ উপস্থাপন করেন নি, তবে তিনি বলেছেন বিভিন্ন রাজ্যে তারা আদালতের হস্তক্ষেপ চেয়ে আবেদন দাখিল করেছেন।

    তিনি বলেন ‘আইন-সম্মত’ ভোট গুনলে তিনি সহজেই বিজয়ী হয়েছেন।যদি, তার ভাষায়, ‘বেআইনি ভোট’ গোনা হয় তাহলে তাদের কাছ থেকে নির্বাচন চুরি করা হচ্ছে।

    মি. ট্রাম্প বলেন যে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যে তিনি অনেক ভোটে এগিয়ে ছিলেন। কিন্তু পরে ‘রহস্যজনক’ ভাবে অনেক নতুন ভোট গোনা শুরু হয়।

    তিনি দাবী করেন, এখানে নির্বাচন শেষ হবার পর ভোট পাঠানো হয়েছে, বেআইনি ভোট গ্রহণ করা হয়েছে, গোপনে ভোট গোনা হয়েছে, ভোট গণনা কেন্দ্রে রিপাবলিকান দলের পর্যবেক্ষকদের ঢুকতে দেয়া হয়নি। তবে তার এসব দাবীর পক্ষে তিনি কোন প্রমাণ উপস্থাপন করেননি।

    তিনি নির্বাচনের আগের মাসগুলোতে প্রকাশিত জনমত জরীপের তীব্র নিন্দা করে বলেন যে, তার সমর্থকদের নিরুৎসাহিত করার উদ্দেশ্যে জো বাইডেনকে এগিয়ে দেখিয়ে এসব জরীপ প্রচার করা হয়েছিল।

    নির্বাচনের আগে বেশির ভাগ জরীপে দেখা গিয়েছে মি. বাইডেন দেশব্যাপী এগিয়ে। অনেক পর্যবেক্ষক ধারণা করেছিলেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থীর বিপুল বিজয় হবে।

    প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
    Image caption: প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প: ‘''আইন-সম্মত’ ভোট গুনলে আমি বিজয়ী।'
  2. পরাজয় মানার পরিকল্পনা নেই: ট্রাম্প কর্মকর্তা

    আমেরিকান টেলিভিশন চ্যানেল সিবিএস ট্রাম্প নির্বাচনী কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে রিপোর্ট করেছে যে, জো বাইডেন জয় ঘোষণা করলেই ডোনাল্ড ট্রাম্প পরাজয় মেনে নেবেন, তেমন কোন পরিকল্পনা প্রেসিডেন্টের নেই।

    ‘’একটি সুষ্ঠু এবং অবাধ নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট জয়ী হবেন,’’ কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে সিবিএস বলে।

  3. ওয়াইট হাউসের ভেতরে

    টারা ম্যাককেলভি

    বিবিসি নিউজ, ওয়াশিংটন

    চার বছর আগে মি. ট্রাম্প বলেছিলেন যে নির্বাচনে ‘কারচুপি’ করা হয়েছে। তিনি এখন একই অভিযোগ তুলছেন। তার নির্বাচনী কর্মকর্তারা ভোট জালিয়াতির কথা বলছেন এবং একটি বিবৃতি দিয়েছেন: ‘’তারা আমাদের কাছ থেকে নির্বাচন চুরি করতে পারে’’ – তবে তারা বলেন নি এই অভিযোগ কিসের ভিত্তিতে করা হচ্ছে।

    ওয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের দফতর ওয়েস্ট উয়িং-এ, অফিস ঘরগুলো বেশ নীরব। ওয়াইট হাউস উপ প্রেস সচিব ব্রায়ান মর্গেনস্টার্ন দিন-রাত কাজ করে চলছেন (আমাকে বললেন, তিনি রাতের উচ্ছিষ্ট মুরগী ফ্রাই দিয়ে সকালের নাস্তা করেছেন)এবং কী হয় তা দেখার জন্য অপেক্ষা করছেন। ‘’পরিস্থিতি বেশ ঘোলাটে,’’ তিনি বলেন, ‘’আমরা সবাই স্রোতের সাথে চলছি।‘’

    এখানে মনে হচ্ছে না কেউ চলে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছে। অফিস ডেস্ক গুলোতে চিঠি-পত্রের স্তূপ পরে আছে আর ওয়াইট হাউসের লোগো যুক্ত কাগজের কফি কাপ ছড়িয়ে আছে। পেছনে সিএনএন চলছে একটি টেলিভিশন স্ক্রিনে, তাদের ঘোষণা: ‘’জয়ের প্রান্তে বাইডেন।‘’

    অন্তত এই অফিসে কেউ ঐ রিপোর্ট আমলে নিচ্ছে না। তারা নিজেদের মধ্যে গল্প করছেন, টেলিফোন কলের উত্তর দিচ্ছেন আর আরেটি দীর্ঘ রাতের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন।

  4. বিদেশি হস্তক্ষেপের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি: যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার নিরাপত্তা প্রধান

    যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগের সাইবার বিষয়ক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন যে ভোট গণনায় বিদেশি কোনো পক্ষ হস্তক্ষেপ করেছে, এমন কোনো প্রমাণ সরকারের কাছে নেই।

    এক বিবৃতিতে ক্রিস্টোফার ক্রেবস তুলে ধরেন যে ‘কোনো বিদেশি পক্ষ আমেরিকানদের ভোট দেয়া থেকে বিরত রাখতে পেরেছে অথবা ভোটের গণনায় পরিবর্তন করতে পেরেছে, এমন কোনো প্রমাণ নেই।’

    ২০১৬ সালের নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনের বিপক্ষে নির্বাচনের ফল প্রভাবিত করার চেষ্টার পেছনে রাশিয়ার ভূমিকা ছিল বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো।

    মি ক্রেবস বলেছেন, “ভোট গণনার প্রক্রিয়া চলাকালীন বা চূড়ান্ত ফলাফল আসার আগে বিদেশি কোনো পক্ষ যেন প্রভাব খাটাতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে নজরদারি অব্যাহত রাখবো আমরা।"

    প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের শিবির এখন পর্যন্ত কারচুপির অভিযোগ করার পাশাপাশি একাধিক রাজ্যে ভোট গণনার ক্ষেত্রে আইনি পদক্ষেপ নিলেও এখন পর্যন্ত কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দেখাতে পারেনি।

  5. Post update

    বিবিসি বাংলার এই লাইভ পেজ থেকে আপাতত বিদায় নিচ্ছি আমি মাসুদ হাসান খান। আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। তবে ভোটের গুরুত্বপূর্ণ সব খবরাখবর এর পরও আমরা নিয়মিতভাবেই পোস্ট করে যাব। সেজন্য নজর রাখুন এই পাতায়।

  6. মামলার জন্য ট্রাম্প সমর্থকরা লক্ষ লক্ষ ডলার চাঁদা তুলছেন

    ভোটের ফলাফলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যগুলিতে যখন গণনার কাজ চলছে সেই সময়ে ট্রাম্প নির্বাচনী দল তাদের মামলা চালানো খরচ তোলার জন্য প্রচারকার্য চালাচ্ছে।

    নানা ধরনের আবেদন পাঠিয়ে ট্রাম্প সমর্থকদের সয়লাব করে দেয়া হচ্ছে যেখানে বলা হয়েছে নির্বাচনের ফল যাতে ‘চুরি’ করতে না পারে সেজন্য ‘বামপন্থীদের ঠেকিয়ে দিন।‘

    মামলার ব্যয়ের জন্য শুধুমাত্র আজকের দিনেই তারা ৮০ লক্ষ ডলার চাঁদা তুলেছেন বলে টেলিভিশন চ্যানেল সিবিএসকে জানিয়েছেন ‘ট্রাম্প ভিক্টরি’ নামের একটি গ্রুপের অর্থ বিষয়ক চেয়ারম্যান।

    চাঁদার আবেদন
  7. কেন্টাকির শহরে নতুন মেয়র এক কুকুর!

    মহামান্য মেয়র উইলবার
    Image caption: মহামান্য মেয়র উইলবার

    ভোট গণনার এই সংকটময় মুহূর্তেও যুক্তরাষ্ট্রে ঘটে চলেছে নানা ধরনের মজার ঘটনা। তারই একটি এখানে:

    উইলবার হচ্ছে ছয়-বছর বয়সী এক ফ্রেঞ্চ বুলডগ।

    আগামী চারটি বছর তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    কারণ এই কুকুরটিকে কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের র‍্যাবিট হ্যাশ শহরের মেয়র পদে নির্বাচিত করা হয়েছে। সত্যি তাই!

    উইলবারের মুখপাত্র অর্থাৎ তার মালিক এমি নোল্যান্ড বলছেন, পাঁচশোরও কম অধিবাসী এই ছোট্ট শহরটিতে কখনই কোন মানুষকে মেয়র পদে বসানো হয়নি।

    একজন স্থানীয় বাসিন্দা ১৯৯০-এর দশকে প্রস্তাব করেন যে সেখানে ইতিহাস চর্চা করে যে সমিতি তার অর্থ সংগ্রহের জন্য মানুষ নয় কোন প্রাণীকে মেয়র নির্বাচিত করা হোক।

    আর তখন থেকেই এই রীতি চলে আসছে বলে টিভি চ্যানেল এনবিসিকে জানান এমি নোল্যান্ড।

    র‍্যাবিট হ্যাশে প্রথম যে কুকুর মেয়র নির্বাচিত হয় তার নাম গুফি।

    এরপর মোট পাঁচবার ঐ শহরে সারমেয় নেতৃত্বকে বরণ করা হয়েছে।

    এমি নোল্যান্ড জানান, উইলবার তার নতুন দায়িত্বকে বেশ গুরুত্বের সাথেই নিয়েছে।

    তবে নতুন মেয়রকে তার পেটে এবং কানে নিয়মিতভাবে আদর করতে হয়।

  8. ব্রেকিংমিশিগানে ট্রাম্পের মামলা খারিজ করলেন বিচারক

    মিশিগান রাজ্যে ভোট গণনা স্থগিত চেয়ে ট্রাম্প প্রচার দলের এক মামলা বিচারক খারিজ করে দিয়েছেন।

    ঐ রাজ্যের ফার্স্ট ডিস্ট্রিক্ট অ্যাপিলস কোর্টের বিচারক সিনথিয়া স্টিভেন্স বলছেন, মামলাটি দায়ের হতে অনেক দেরি হয়েছে, কারণ গণনা শেষ হতে মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি।

    তিনি বলেন, মামলায় ভুল কর্মকর্তাকে বিবাদী করা হয়েছে।

    ভোট গণনা প্রক্রিয়ায় কোনভাবে হস্তক্ষেপ করার আইনগত ক্ষমতা রাজ্যের সেক্রেটারি অফ স্টেটের নেই বলে তিনি জানান।

    প্রেসিডেন্টের নির্বাচনী প্রচার কর্মকর্তারা যুক্তি দেন যে গণনার সময় রিপাবলিকান পর্যবেক্ষকদের হাজির থাকা উচিত।

  9. ভোট নিয়ে এখন পর্যন্ত যা ঘটেছে

    ব্যালট
    • যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে চূড়ান্ত ফলাফল এখন নির্ভর করছে মোট চারটি রাজ্যের ওপর – অ্যারিজোনা, জর্জিয়া, নেভাডা এবং পেনসিলভেনিয়া।
    • এসব রাজ্যে ভোট গণনার ফলাফল স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার জুড়েই আসতে থাকবে, কিন্তু চূড়ান্ত ফলাফল পেতে আরও সময় লাগবে।
    • নেভাডা এবং অ্যারিজোনায় জো বাইডেন সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন।
    • জর্জিয়া ও পেনসিলভেনিয়াতেও তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে একটু একটু করে ব্যবধান কমিয়ে আনছেন।
    • পেনসিলভেনিয়া, উইসকনসিন, জর্জিয়া এবং মিশিগানে ভোট গণনা বন্ধ করার লক্ষ্যে মি. ট্রাম্পের নির্বাচনী দল মামলা দায়ের করেছে।
    • মি. বাইডেন এখন পর্যন্ত মোট সাত কোটি ১৫ লক্ষ ভোট পেয়েছেন।
    • তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য তার পক্ষে প্রয়োজনীয় সংখ্যক রাজ্যের ভোট রয়েছে।
    • মি. ট্রাম্প গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যসহ অন্যান্য রাজ্যে জনমত জরিপের চেয়ে বেশি ভোট পেয়েছেন।
    • কিন্তু তার বিজয়ের সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে আসছে।
    • এবারে নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৬৬%, যুক্তরাষ্ট্রের ১২০ বছরের ইতিহাসে যা সবচেয়ে বেশি।
    • অনেক রাজ্যেই ভোট গণনা ধীর গতিতে চলছে। তাই চূড়ান্ত ফলাফল আসতেও সময় লাগছে অনেক বেশি।
  10. Post update

    প্যাম বন্ডি ও কোরি লেওয়ানডোস্কি

    ফ্লোরিডার সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল প্যাম বন্ডি এবং ট্রাম্প প্রচার দলের উপদেষ্টা কোরি লেওয়ানডোস্কি পেনসিলভেনিয়া কনভেনশন সেন্টার ভোট কেন্দ্রের বাইরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলছেন।

    এর আগে এই কেন্দ্রে গণনা বন্ধ রাখা হয়েছিল।

    কারণ এক আদালত নির্দেশ দিয়েছিল যে গণনা ও যাচাই কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের ছয় ফুট দূরত্বে ট্রাম্প নির্বাচনী প্রচার দলের পর্যবেক্ষকদের থাকতে দিতে হবে।

  11. ফিলাডেলফিয়ায় ভোট গণনা আবার শুরু

    ভোট গণনা

    পেনসিলভেনিয়া রাজ্যে এক আইনগত জটিলতার মধ্যে ফিলাডেলফিয়া শহরে ভোট গণনা আবার শুরু হয়েছে।

    এর আগে গণনা বন্ধ রাখা হয়েছিল।

    কারণ, এক আদালত নির্দেশ দিয়েছিল যে গণনা ও যাচাই কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের ছয় ফুট দূরত্বে ট্রাম্প নির্বাচনী প্রচার দলের পর্যবেক্ষকদের থাকতে দিতে হবে।

    পেনসিলভেনিয়ায় মোট ২০টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট রয়েছে।

    ফলে সেখানে কী হয় সে সম্পর্কে দুই পক্ষের আগ্রহ সমান।

    পেনসিলভেনিয়ায় জো বাইডেন জিতে গেলে তিনি নিশ্চিতভাবেই পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন।

    অন্যদিকে, এই রাজ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয় হলে প্রেসিডেন্সি ধরে রাখার কাজ তার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে।

    পেনসিলভেনিয়ায় এখনও প্রায় ১,২০,০০০ ব্যালটপত্র গণনার কাজ বাকি রয়েছে।

  12. ব্রেকিংউইসকনসিন এখন বাইডেনের

    ফলাফল

    আমাদের নির্বাচন কভারেজে আরেকটি আপডেট:

    বিবিসির এখনকার পূর্বাভাস হচ্ছে জো বাইডেন উইসকনসিনে বিজয়ী হতে যাচ্ছেন।

    এই সুবাদে মি. বাইডেন পেয়েছেন ২৫৩টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট।

    অন্যদিকে, মি. ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি।

    তবে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য মি. বাইডেনকে মোট ২৭০ টি ভোট পেতে হবে।

    কারণ গুরুত্বপূর্ণ ক’টি ফলাফল নির্ধারণী রাজ্য অ্যারিজোনা, নেভাডা, পেনসিলভেনিয়া এবং জর্জিয়াতে এখনও গণনা চলছে।

  13. ভোটের ফলাফল কখন জানা যাবে?

    মিশিগান রাজ্যের ডেট্রয়েট শহরের একটি গণনা কেন্দ্র
    Image caption: মিশিগান রাজ্যের ডেট্রয়েট শহরের একটি গণনা কেন্দ্র

    এই রাজ্যগুলোয় ভোটের ফলাফল আসার সম্ভাব্য সময়:

    আজ আরও পরের দিকে যে সময়ে ভোটের ফলাফল প্রকাশের সম্ভাবনা রয়েছে, সে সম্পর্কে কিছু ধারণা আপনাদের দিয়ে রাখতে চাই।

    জর্জিয়া: দিনের আরও আগের দিকে রাজ্যে একজন গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন কর্মকর্তা জানিয়েছিলেন যে স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১২টায় (গ্রিনিচ মান সময় বিকেল ৫:৩০) ভোট গণনার কিছু নতুন তথ্য জানানো হবে। কিন্তু সেই সময় পার হয়েছে। এখনও সেই তথ্য আসেনি।

    নেভাডা: ভোট গণনার কিছু নতুন তথ্য জানানো হবে। জিএমটি বিকেল ৫:৩০টায়। এই ফলাফল যেকোন মুহূর্তে আসতে পারে। রিপাবলিকানরা এই রাজ্যে গণনার বিরুদ্ধে আজ মামলা দায়ের করেছে। তাদের দাবি, ১০,০০০ লোকের ভোট পড়েছে যারা আর ঐ অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দা না।

    অ্যারিজোনা: স্থানীয় সময় রাত নয়টার (রাত ২টা জিএমটি) আগে নতুন কোন তথ্য আসার সম্ভাবনা নেই। কয়েকটি টিভি চ্যানেল ইতোমধ্যেই বলে দিয়েছে যে মি.বাইডেন এই রাজ্যে জিতেছেন। কিন্তু বিবিসি এখনই এ সম্পর্কে কোন তথ্য দেবে না।

    পেনসিলভেনিয়া: রাজ্যের রিপাবলিকান আইনসভা ভোটের আগে যে কোন ব্যালট পত্র গণনা নিষিদ্ধ করেছিল। এর ফলে মনে করা হচ্ছে এই রাজ্যের চূড়ান্ত ফলাফল জানতে কয়েক দিন লেগে যাবে।

    নর্থ ক্যারোলাইনা: ১২ই নভেম্বরের আগে ফলাফল আসার সম্ভাবনা কম। ভোটের দিন ডাকযোগে যেসব ব্যালট পাঠানো হয়েছে তা ১২ই নভেম্বর পর্যন্ত আসবে এবং সেগুলো সবই গণনা করা হবে।

  14. ব্রেকিংট্রাম্পের মামলা হলো ‘বিভ্রান্তির কৌশল’: টিম বাইডেন

    জো বাইডেনের প্রচার দলের মুখপাত্র জেন ও’ম্যালি ডিলন এইমাত্র সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন যে ট্রাম্প টিম এখনও মামলা দায়ের করার এক ব্যর্থ কৌশল প্রয়োগের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

    তিনি বলেন, এসব মামলা হলো “এখন যা অবশ্যম্ভাবী তাকে ঠেকিয়ে রাখার এক প্রচেষ্টা – জো বাইডেনই হতে যাচ্ছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।”

    তিনি দাবি করেন মিশিগানে তারাই জিতেছেন, এবং পেনসিলভেনিয়াতেও দলের অবস্থান ভাল।

    মি. বাইডেনের আইনজীবী দলের পরিচালক বব বাওয়ার বলছেন, রিপাবলিকানদের কিছু ‘বোকাটে দাবি’র ব্যাপারে তিনি বিস্তারিত সাংবাদিকদের কাছে প্রকাশ করতে যাচ্ছেন।

    “এসবই হলো বিভ্রান্তি তৈরির এক কৌশল,” তিনি বলেন, এভাবে ট্রাম্প সমর্থকরা নির্বাচনী প্রক্রিয়ার ব্যাপারে মানুষের আস্থায় ঘুণ ধরাতে চাইছে।

  15. পুড়িয়ে দেয়া ব্যালট পত্র ছিল ‍'শুধুই স্যাম্পল'

    রিয়ালিটি চেক, বিবিসি

    ব্যালট পোড়ানো

    যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন ও ভোট গণনা নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং তার সমর্থকরা মানুষের মনে সন্দেহ ও অবিশ্বাস তৈরির চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

    সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে দৃশ্যত ৮০টি ব্যালট পত্র একটি ব্যাগে ঢুকিয়ে, তার ওপর তেল ঢেলে তা জ্বালিয়ে দেয়া হচ্ছে।

    এই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ছেলে এরিক।

    তবে ভার্জিনিয়া বিচ শহরের কর্মকর্তারা এ নিয়ে ভোটের দিনেই এক বিবৃতি প্রকাশ করেছেন এবং তাতে তারা জানিয়েছেন যে ব্যালট পত্রগুলোতে কোন সরকারি ছাপ ছিল না এবং সেগুলো ছিল স্যাম্পল, বা ব্যালট পত্রের নমুনা।

    ভার্জিনিয়া বিচ শহরের মেয়র নিজে একজন রিপাবলিকান।

    এর পরও এরিক ট্রাম্প ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করেন যেটিতে এক লক্ষ বার লাইক দেয়া হয়, শেয়ার করা হয় এবং নানা ধরনের কমেন্ট করা হয়।

    তার এই পোস্টটি যে অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা হয়েছে টুইটার সেটি বন্ধ করে দিয়েছে।

    তারপরও ভিডিওটি ইউটিউবে শেয়ার করা হয়েছে।

    ইউটিউব কর্তৃপক্ষ এব্যাপারে এখনও কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

  16. ব্রেকিংফিলাডেলফিয়ার গণনা কেন্দ্রে ঢুকতে চাইছে ট্রাম্প প্রচার দলের কর্মীরা

    মি. ট্রাম্পের প্রচার দলের দুই সদস্য এই মাত্র ফিলাডেলফিয়ার কনভেনশন সেন্টার ভোট গণনা কেন্দ্রে হাজির হয়েছেন এবং দাবি করছেন ভেতরে ঢোকার জন্য তাদের হাতে আদালতের নির্দেশ রয়েছে।

    পেনসিলভেনিয়ার এই শহরে ডাকযোগে আসা ব্যালট পত্রগুলো গণনা করা হচ্ছে।

    কোরি লিওয়ানডস্কি এবং প্যাম বান্ডি বলছেন, “ আমরা এই মুহূর্তে এখানে ঢুকতে চাই এবং বৈধভাবে গণনা পর্যবেক্ষণ করতে চাই।”

    তাদের অভিযোগ, কেন্দ্রের ভেতরে অস্ত্র ও পরিচয়পত্রধারী এক ব্যক্তি, যিনি পুলিশ নন, তিনি রিপাবলিকান প্রতিনিধিকে গণনার জায়গা থেকে ১০০ ফুট দূরে সরিয়ে রেখেছে।

    ওদিকে ট্রাম্প প্রচার দলের ম্যানেজার বিল স্টেপিয়েন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন যে ডেমোক্র্যাটরা “মিথ্যে বলছে, জালিয়াতি করছে ও চুরি করছে।“ এবং নানা ধরনের বেআইনি কাজকর্ম চলছে।

    কিন্তু ভোট জালিয়াতির কোন প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি।

    এই রাজ্যে ভোট গণনা শেষ হতে যে দেরি হবে তা আগে থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল।

  17. ভোট কি শুধু ট্রাম্প আর বাইডেনের জন্য?

    দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর বাইরেও রয়েছেন অনেকে

    ক্যাপিটল হিল
    Image caption: ক্যাপিটল হিল

    এই ভবনের নাম ক্যাপিটল হিল, যুক্তরাষ্ট্রের সংসদ ভবন।

    এই ভবনে জায়গা করে দেয়ার জন্যই ৩রা নভেম্বর সারা দেশ জুড়ে নির্বাচন হয়েছে।

    সেদিনের ভোটে আমেরিকানরা বেছে নিয়েছেন একজন প্রেসিডেন্ট, একজন ভাইস প্রেসিডেন্ট, ৩৫ জন সিনেটার, সংসদের নিম্ন কক্ষ হাউস অফ রিপ্রেজেনটেটিভের ৪৩৫ জন সদস্য, ১১ রাজ্য ও দুটি মার্কিন নিয়ন্ত্রিত ভূখণ্ডের মোট ১৩ জন গভর্নর এবং স্থানীয় সরকারের বহু কর্মকর্তাকে।

  18. ট্রাম্পের টুইট: “গণনা বন্ধ করুন।“

    প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প

    যুক্তরাষ্ট্রে ভোটের গণনায় দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে দূরত্ব যখন কমছে, তখন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইট করেছেন: “গণনা বন্ধ করুন।“

    গতকাল (বুধবার) তার ভাষণে মি. ট্রাম্প এই নির্বাচনকে “মার্কিন জনগণের ওপর এক জালিয়াতি” বলে বর্ণনা করেন। এবং “সব ভোট বন্ধ” করার ডাক দেন, যদিও পরিকল্পিত জালিয়াতির কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

    ভোট গণনা বন্ধ করার আশায় ট্রাম্প প্রচারণা দল বেশ কয়েকটি রাজ্যে মামলা দায়ের করেছে।

    তবে কথিত জালিয়াতি বা কারচুপির ওপর কোন প্রমাণ তারা দাখিল করেনি।

    তারা উইসকনসিনেও পুন:গণনার দাবি করছে। নেভাডার রিপাবলিকান পার্টিও বলছে যে ভোট জালিয়াতির অভিযোগে তারা মামলা করতে যাচ্ছে।

    তাদের দাবি, প্রায় ১০,০০০ লোকের ভোট পড়েছে যারা ঐ অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দাই না।

    রিপাবলিকান পার্টির কৌশল প্রণয়নকারীদের একজন সেথ ওয়েদার্স বিবিসিকে বলেছেন, মি. ট্রাম্প চাইছেন গণনা প্রক্রিয়ায় রিপাবলিকানদের অধিকতর পর্যালোচনার সুযোগ দেয়ার আগে সব গণনা বন্ধ রাখা হোক।

  19. ট্রাম্প ভোট গণনায় জালিয়াতির অভিযোগ তুলেছেন – কিন্তু কোনো প্রমাণ আছে কি

    রিয়েলিটি চেক

    বিবিসি

    প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভোট জালিয়াতির অভিযোগ খতিযে দেখেছে বিবিসি'র রিয়েলিটি চেক টিম।

    প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে এই নির্বাচন ‘আমেরিকান জনগণের প্রতি জালিয়াতি।’

    তিনি বলেছেন, “আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত যাবো। আমরা চাই ভোট গ্রহণ যেন বন্ধ করা হয়।”

    ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যগুলোতে বড় সংখ্যক ভোট এখনো গণনা করা বাকি, যা নির্বাচনের ফলকে যে কোনো দিকে ঘুরিয়ে দিতে পারে।

    জালিয়াতির অভিযরোগ তুললেও ট্রাম্প কোনো নির্দিষ্ট প্রমাণ দিতে পারেনি। আর পূর্ববর্তী নির্বাচনগুলোর ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে ভোট গণনার ক্ষেত্রে জালিয়াতি খুবই বিরল।

    ট্রাম্প বারবার এই অভিযোগ তুলেছেন যে পোস্টাল ব্যালটের ক্ষেত্রে – করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবার যেটির বিস্তৃত প্রয়োগ হয়েছে – ব্যাপক আকারে জালিয়াতি হতে পারে।

    এছাড়া জালিয়াতির আর যা অভিযোগ উঠেছে সেগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় অপ্রমাণিত গুজব।

  20. ব্রেকিংনেভাডায় ‘ভোট জালিয়াতি’র মামলা করবে রিপাবলিকানরা

    নেভাডার রিপাবলিকান পার্টি এইমাত্র নিশ্চিত করেছে যে কথিত ভোট জালিয়াতির অভিযোগে তারা মামলা দায়ের করতে যাচ্ছে।

    তারা দাবি করছে, প্রায় ১০,০০০ লোকের ভোট পড়েছে যারা এখন আর ঐ অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দা না।

    ভোটের জন্য নিবন্ধিত সব প্রাপ্তবয়স্কদের সবাইকে আগাম ব্যালট পত্র পাঠিয়েছিল যে ক’টি অঙ্গরাজ্য নেভাডা তাদের মধ্যে একটি।

    নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এই পরিকল্পনার বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখেছিলেন এবং বলেছিলেন যে এতে জালিয়াতির সুযোগ রয়েছে।

    তবে মি. ট্রাম্প যা-ই দাবি করুন না কেন এবারের নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে এমন কোন প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি।

    নেভাডাকে নিয়ে মোট চারটি রাজ্যে রিপাবলিকানরা নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ করে মামলা দায়ের করেছে।

    তারা পঞ্চম একটি রাজ্য উইসকনসিনে ভোট পুন:গণনারও দাবি করছে।


 






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply