sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » জাতিকে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করে ডাকসু




জাতিকে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করে ডাকসু (ভিডিও) মুক্তি সংগ্রামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসুর ভূমিকা অনন্য। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে সকল আন্দোলন-সংগ্রাম সূচিত হয়েছে ডাকসুকে ঘিরে। জাতির পিতার নির্দেশে ডাকসুই জাতিকে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করে হাতে অস্ত্র তুলে নেয়ার সাহস দেখায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসু, নেতৃত্ব তৈরির আতুর ঘর। শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ের পাশাপাশি বাঙালির মুক্তি সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে ডাকসু। ১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলনের নেতৃত্বেই ছিলো ডাকসু। এরপর ১৯৬৬ সালের বাঙালির মুক্তির সনদ ৬ দফা আন্দোলন এবং ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদই ছিলো কেন্দ্রীয় ভূমিকায়। সেই থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ই সকল আন্দোলন সংগ্রামের সূতিকাগার। ডাকসুর সাবেক ভিপি আ স ম আব্দুর রব বলেন, ডাকসু এবং স্বাধীন বাংলা ছাত্র পরিষদের নির্দেশেই বাংলাদেশে আন্দোলন চালিত হয়েছে। মানুষ ডাকসু কি জিনিস তা জানতো না কিন্তু ডাকসুর সিদ্ধান্তটা জানতো। মুক্তির মশাল জ্বেলে জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করেছে ডাকসু। আ স ম আব্দুর রব বলেন, মানুষ অপেক্ষা করে থাকতো, ডাকসু থেকে কি নির্দেশ যাচ্ছে এবং ডাকসুর অফিসটাই ছিল আমাদের কন্ট্রোল রুম। আরেকটা কন্ট্রোল রুম ছিল ইকবাল হলে। ১৯৫৩ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে ডাকসুর প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। শুধু রাজনৈতিক অধিকার আদায়েই নয়, ডাকসু নেতৃত্ব দিয়েছে সামাজিক-সাংস্কৃতিক আন্দোলনেও। তাই বাঙালির মুক্তির ইতিহাসে, স্বাধীনতার ইতিহাসে ডাকসু থাকবে উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply