sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বিদেশে পাচার হওয়া টাকা ফেরত আনার চ্যালেঞ্জ-- নতুন চেয়ারম্যান ,নতুন কমিশন।




ছবি- সংগৃহীত দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নতুন চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ এবং কমিশনার মো. জহুরুল হক তাদের দপ্তরে যোগ দিয়েছেন। বিদেশে পাচার হওয়া টাকা ফেরত আনার চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ শুরু করলেন দুদকের এই নতুন কমিশন। এজন্য আন্তর্জাতিক চুক্তি ও বিদ্যমান আইনের সমন্বয়ে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। এছাড়া, নতুন চেয়ারম্যান আরো বলেন, যেকোন মূল্যে দুদকের ভেতরে জবাবদিহিতা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা হবে। বুধবার বেলা সোয়া ১১টায় সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে পৌঁছালে কমিশন সচিব মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার এবং অন্যান্য সহকর্মীরা তাদের অর্ভ্যন্তণা জানান। বছরে ৬৪ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচারের অভিযোগ খতিয়ে দেখছে দুদক। এরই মধ্যে এবিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বেসরকারি ব্যাংক ও বিএফআইইউ থেকে তথ্য নেয়া শুরু করেছে সংস্থাটি। কর্মস্থলে যোগ দিয়ে নতুন চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আব্দুল্লাহ ও কমিশনার জহুরুল হক সংবাদিকদের জানান, বিদেশে পাচার হওয়া টাকা ফেরত আনার ওপর বেশি গুরুত্ব দেয়া হবে। দেশের আইন ও বাংলাদেশের আনকাকের সদস্য পদকে কাজে লাগিয়ে ফেরত আনা হবে এসব টাকা। পাশাপাশি জনগণের আস্থা তৈরি করতে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স হবে দুদক। নতুন চেয়ারম্যান বলেন, দূর করা হবে মামলার দীর্ঘসূত্রতা। এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতি মামলাগুলোর অভিযোগপত্র দিতে কেন এত দেরি হচ্ছে তা খতিয়ে দেখা হবে। উল্লেখ্য, মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ দুদক চেয়ারম্যান পদে ইকবাল মাহমুদের স্থলাভিষিক্ত হলেন। আর জহুরুল হক দুদকের কমিশনার (তদন্ত) পদে এ এফ এম আমিনুল ইসলামের জায়গায় দায়িত্ব নিলেন। অন্যদিকে, কমিশনে অপর সদস্য হিসেবে রয়েছেন সাবেক জ্যেষ্ঠ সচিব মোজাম্মেল হক খান। তার মেয়াদ আছে ২০২৩ সালের জুলাই পর্যন্ত।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply