sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষায় কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিষিদ্ধ




ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণকারীদের সঙ্গে সমন্বয় সভা। ছবি : ডিএমপি আগামী শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত সারা দেশে একযোগে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা নকলমুক্ত রাখতে পরীক্ষাকেন্দ্রে সব ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস নেওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আজ বুধবার বেলা ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সদর দপ্তরে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণকারীদের সঙ্গে এক সমন্বয় সভা করেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। সভায় বেশ কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়। আজ বুধবার বিকেলে ডিএমপির জনসংযোগ শাখা থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের মাস্ক পরে কেন্দ্রে আসার জন্য নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রের প্রবেশ পথে তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানার, জীবাণুনাশক অটো স্প্রে মেশিনসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা থাকবে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গৃহীত সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে, মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষাকেন্দ্রে মোতায়েন থাকবে পর্যাপ্ত পুলিশ। একই সঙ্গে প্রতিটি কেন্দ্রে থাকবে মোবাইল কোর্ট। পরীক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র ব্যতীত অন্য কোনো কাগজ সঙ্গে নিতে পারবেন না। পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশের সময় সব পরীক্ষার্থীর দেহ তল্লাশি করে প্রবেশ করানো হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রের ইনচার্জ ব্যতীত কেউ কাছে মুঠোফোন রাখতে পারবেন না। তল্লাশিকাজে থাকবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা। ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে সব ধরনের গুজব বা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো রুখতে সোশ্যাল মিডিয়াসহ অ্যাপসভিত্তিক বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম (হোয়াটসঅ্যাপস, মেসেঞ্জার, ভাইভার, ইমু ইত্যাদি) মনিটরিং করবে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ। এ তথ্যও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। সমন্বয় সভায় সভাপতির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘একটি স্বচ্ছ মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি। যারা যোগ্য তারাই এই পরীক্ষার মাধ্যমে মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাবেন। করোনাভাইরাসের কারণে গণপরিবহণে আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী পরিবহণে সরকারি নির্দেশনা রয়েছে। ফলে পরিবহণ সংকট দেখা দিতে পারে। পরিস্থিতি বিবেচনায় মেডিকেল পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের অবশ্যই পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে কেন্দ্রের উদ্দেশে রওনা দিতে হবে। যাতে পরীক্ষার্থীরা শুক্রবার সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষাকেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে পারেন। আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘পুলিশের যেসব সদস্য মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন, তাদেরও অবশ্যই মাস্ক পরাসহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’ সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) পোস্ট গ্রাজুয়েট স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. অলোক কুমার পাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. টিটু মিয়া, মুগদা মেডিকেল কলেজের অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর ডা. এম এ হামিদ, ঢাকা ডেন্টাল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. আ ফ ম সারোয়ার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আবু হোসাইন মো. আহসান, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের ডেপুটি সেক্রেটারি মোহাম্মদ আব্দুল কাদেরসহ মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রের প্রতিনিধি, ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিরা। উল্লেখ্য, আগামী দুই এপ্রিল মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা মহানগরের ১৫টি কেন্দ্রে অংশগ্রহণ করবে ৪৭ হাজার শিক্ষার্থী।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply