sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রোনালদোই কি ফুটবল ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা?




রোববার রাতে ইতালিয়ান ক্লাব ক্যালিয়ারির বিপক্ষে ৩২ মিনিটের মধ্যেই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এটি পর্তুগিজ তারকার ক্যারিয়ারের ৫৭তম হ্যাটট্রিক। এই তিন গোলে তার মোট গোলসংখ্যা দাঁড়ালো ৭৭০। আর ফুটবলের রাজা পেলের অফিসিয়াল গোলসংখ্যা ৭৬৭টি। সেই হিসেবে রোনালদোই ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তবে এই হিসেবে বাধ সেঁধেছেন জোসেফ বিকান। এ খবর বিবিসি বাংলা’র। রোনালদো ৭৬০ গোল যেদিন স্পর্শ করেন সেদিনই কিছু সংবাদমাধ্যম ও ফুটবলভিত্তিক ওয়েবসাইটে খবর আসে রোনালদোই সর্বোচ্চ গোলদাতা। কিন্তু কেন তিনি তখনই উদযাপন করেননি তার ব্যখ্যা করলেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়া এক পোস্টে। প্রথমে বলা হচ্ছিল ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলের আনুষ্ঠানিক গোলসংখ্যা ৭৫৭টি। তবে রোনালদোর পোস্টে জানা যায়, পেলের সাও পাওলো স্টেট দল ও ব্রাজিলের মিলিটারি দলের হয়ে আরও ১০টি গোল আছে, এই হিসেবে পেলের গোল দাঁড়ায় ৭৬৭টি। রোনালদো তার পোস্টে লেখেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই খবর আসছিল, আমি পেলের ৭৫৭ গোলের অফিসিয়াল রেকর্ড ভেঙেছি। আমি এটা নিয়ে চুপ ছিলাম কেন সেই কারণ এখন ব্যাখ্যা করছি। ‘আমি সবসময়েই বলে এসেছি, এডসন আরান্তেস দে নাসিমেন্তো পেলের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ছিল, আছে, থাকবে। আমি সেজন্যই তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তার ৭৬৭ গোলের রেকর্ডটাই অফিসিয়াল হিসেবে ধরেছি, যেখানে তিনি সাও পাওলো স্টেট দলের হয়ে নয় গোল ও ব্রাজিলের মিলিটারি দলের হয়ে আরও এক গোল করেছেন।’ পেলে রোনালদোকে ধন্যবাদ ও অভিবাদন জানিয়ে একটি ইন্সটাগ্রাম পোস্ট দিয়েছেন, যেখানে তিনি বলেছেন, ‘আমার আনুষ্ঠানিক গোলের রেকর্ড ভাঙ্গায় রোনালদোকে অভিনন্দন।’ কিন্তু রোনালদোর মাইলফলকের হিসেবে বাধ সেধেছেন জোসেফ বিকান। যিনি অস্ট্রিয়া ও চেকোস্লোভাকিয়ার হয়ে ফুটবল খেলেছেন। চেক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের হিসেব অনুযায়ী অস্ট্রিয়া ও চেকোস্লোভাকিয়ার হয়ে খেলা জোসেফ বিকানের গোলসংখ্যা ৮২১টি। তবে রেক ডট স্পোর্ট ডট সকার নামের পরিসংখ্যানের ওয়েবসাইটের দেয়া তথ্য অনুযায়ী বিকানের গোলসংখ্যা ৮০৫টি। যার মধ্যে র‍্যাপিড ভিয়েনার রিজার্ভ ও অপেশাদার দলের হয়ে আছে ২৭টি গোল। এগুলো আনুষ্ঠানিক আন্তর্জাতিক ফুটবল হিসেবে স্বীকৃত নয়। এই ২৭ গোল বাদ দিলে বিকানের গোলসংখ্যা দাঁড়ায় ৭৭৮টি, পেলের ৭৬৭টি এবং রোনালদোর ৭৭০টি। এদিকে ইনস্টাগ্রামে একটি দারুণ মুহূর্তের ছবি দিয়ে রোনালদোকে প্রশংসায় ভাসান পেলে। তিনি লেখেন ‘জীবন হলো একক যাত্রা, প্রত্যেকের জীবনের নিজস্ব যাত্রা রয়েছে। জীবনে কী সুন্দর যাত্রাই না তুমি পাচ্ছ। আমি তোমার খেলার অনেক প্রশংসা করি, আমি তোমার খেলা দেখতে ভালোবাসি; এটা কারো কাছে গোপন নয়। তোমাকে অভিনন্দন; আমার আনুষ্ঠানিক (অফিসিয়াল) ম্যাচের গোল রেকর্ড ভঙ্গ করার জন্য।’ ফুটবলের রাজা আরও লেখেন, ‘আমার একমাত্র দুঃখ হচ্ছে আজ তোমাকে জড়িয়ে ধরতে না পারা। স্নেহের সঙ্গে, বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে (যা বহু বছর ধরেই চলছে) তোমার সম্মানে আমি এই ছবিটা ছাড়লাম।’ রোনালদো তার পোস্টে লেখেন, ‘পেলের কথা শুনে বড় হয়নি এমন কোনো ফুটবলার নেই। পেলে এমন একজন যার মতো রোনালদো হতে চেয়েছেন।’ পর্তুগিজ তারকা রোনালদো এখন পর্যন্ত স্পোর্টিং লিসবনের হয়ে পাঁচটি, ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ১১৮টি, রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৪৫০টি, জাতীয় দল পর্তুগালের হয়ে ১০২টি এবং বর্তমান ক্লাব জুভেন্টাসের হয়ে ৯৫টি গোল করেছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply