sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » কৃষির উন্নতি মানেই গ্রামের মানুষের উন্নতি: কৃষিমন্ত্রী




কৃষির উন্নতি মানেই গ্রামের মানুষের উন্নতি: কৃষিমন্ত্রী গ্রামের মানুষের জীবনমানকে উন্নত করতে চাইলে কৃষির উন্নতি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। মন্ত্রী বলেন, গ্রামের অর্থনীতি এখনও কৃষিভিত্তিক। কৃষিকে কেন্দ্র করেই বেশিরভাগ মানুষের জীবন-জীবিকা আবর্তিত হয়। সেজন্য, গ্রামের মানুষের জীবনকে উন্নত করতে চাইলে কৃষির উন্নতির বিকল্প নেই। কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ ও লাভজনক করতে পারলে গ্রামের মানুষের আয় বাড়বে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে ও জীবন উন্নত হবে। অন্যদিকে অর্থনীতিতেও তা বিরাট ভূমিকা রাখবে। বর্তমান কৃষি-বান্ধব সরকার এ লক্ষ্যেই কৃষিতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কৃষিকে আধুনিক ও লাভজনক করতে নিরলস কাজ করছে। কৃষিমন্ত্রী শনিবার (৬ মার্চ) সকালে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় হোসেন্দী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৫ বছর পূর্তি উৎসব ও পুনমির্লনীতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস। মন্ত্রী ড. রাজ্জাক আরও বলেন, বাংলাদেশ হলো গ্রামীণ বাংলাদেশ। এই গ্রামকে আমাদের ভুলে গেলে চলবে না। গ্রামে জন্মগ্রহণ ও পড়াশোনা করে, বড় হয়ে আজকে যারা বিভিন্ন উচ্চপদে চাকরি করছি বা ব্যবসাসহ অন্যান্য পেশায় সফল হয়েছি- তাদেরকে নিজেদের শিকড় নিজের গ্রামকে ভুলে গেলে চলবে না। নিজেদের গ্রামকে আলোকিত করতে হবে, গ্রামের উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে মন্ত্রী আরও বলেন, অর্থ-বিত্তই সব নয়। বাবা-মার কাছে বেশি সম্পদ রেখে যাওয়ার প্রত্যাশা করা উচিত নয়। বাবা-মারও সন্তানদের জন্য বেশি অর্থ-বিত্ত রেখে যাওয়া উচিত নয়। জীবনে অর্থ-বিত্তের প্রয়োজন আছে, কিন্তু লোভ ও প্রয়োজনের মধ্যে সীমারেখা থাকা দরকার; সেটি তোমাদের বুঝতে হবে। তোমরা দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হয়ে মানুষের কল্যাণে মহৎ কাজে নিয়োজিত থাকবে। মনে রাখতে হবে মানুষের কল্যাণে কতটুকু কাজ করেছি- তার উপরই জীবনের সার্থকতা নির্ভর করে। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. মাজহারুল হক তপনের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক আইজিপি (প্রিজন) ও পিএসসির সাবেক সদস্য মো. লিয়াকত আলী খান, প্রাক্তন ছাত্র স্কোয়াড্রন লিডার (অব.) গোলাম কিবরিয়া আব্বাসী, মুন্সিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহফুজ আফজাল, গজারিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আব্দুল মান্নান, গজারিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জিয়াউল ইসলাম চৌধুরী। উল্লেখ্য, গজারিয়ায় হোসেন্দী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৫ বছর পূর্তিউৎসব ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী জাঁকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় স্কুলের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা তাদের স্কুলজীবনের স্মৃতিচারণ করেন। পরে শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply