sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » হোয়াইট হাউসের কাছাকাছি রহস্যজনক ‘এনার্জি অ্যাটাক’!




যুক্তরাষ্ট্রে সংঘটিত অন্তত দুটি রহস্যজনক ও অদৃশ্য হামলার ঘটনা তদন্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র। গত বছরের নভেম্বরে হোয়াইট হাউসের কাছাকাছি রহস্যজনক ‘এনার্জি অ্যাটাক’ এর লক্ষণ বিদ্যমান, যা মার্কিন তদন্ত সংস্থাগুলোকে বিচলিত করে তুলেছে! সিএনএন বলছে, গত বছরের নভেম্বরে হোয়াইট হাউসের দক্ষিণ দিকে ওভাল লনের পাশে জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের একজন সদস্য অজানা লক্ষণ নিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। ২০১৯ সালে একই রকম আরেকটি ঘটনা দেখা যায় ভার্জিনিয়ায়। সেটিও হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তার বরাতে। ওই কর্মকর্তা ভার্জিনিয়ার শহরতলিতে হাঁটার সময় তার কুকুরের মাঝে অদৃশ্য লক্ষণ দেখতে পান ও কুকুরটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। এই দুটি ঘটনা তদন্ত করে দেখা যাচ্ছে, অতীতে আরো কয়েকটি ঘটনার সঙ্গে তা মিলে যাচ্ছে। তদন্ত সংস্থাগুলো মনে করছেন, যে লক্ষণ নিয়ে আগেও বিভিন্ন দেশের মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মী ও তাদের পরিবার-পরিজনের শরীরে দেখা গিয়েছে। সর্বপ্রথম ২০১৬ সালে কিউবার হাভানায় মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে এধরনের লক্ষণ দেখা যায়। হঠাৎ করে দূতাবাসের কর্মীদের মাঝে কানে ব্যথা, তীব্র আওয়াজ শোনা, উচ্চ মাত্রার কম্পন, মাথা ধরা, চোখে কম দেখা, বুদ্ধি লোপ পাওয়া এবং অন্যান্য মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। পরবর্তীতে ক্রমেই একই রকম লক্ষণ দেখা যায় বিশ্বজুড়ে মার্কিন দূতাবাসের কূটনীতিক, কর্মী ও পরিবার-পরিজনের মাঝে। এর মধ্যে রাশিয়া ও চীনের মার্কিন দূতবাস কর্মকর্তাও একই রকম সমস্যায় পড়েছেন। রোগটিকে ‘হাভানা সিনড্রোম’ নামেই অবহিত করা হয়েছে। সেসময় যুক্তরাষ্ট্র সরকারের একটি রিপোর্টে জানানো হয়েছিলো যে, বিশ্বজুড়ে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস কূটনীতিক, কর্মী ও পরিবার-পরিজনদের অজ্ঞাত রোগ, ‘হাভানা সিনড্রোমে’ আক্রান্ত হওয়ার কারণ হতে পারে ঘন ঘন পরিচালিত বেতার তরঙ্গের ব্যবহারI ঘন ঘন রেডিও ‘ফ্রিকোয়েন্সির’ ব্যবহার, দূতাবাস কর্মীদের বিরল রোগের সম্ভাব্য কারণ। তবে এখন এর ভেতরে আরো জটিল রহস্য লুকায়িত বলে মনে করছেন মার্কিন তদন্ত কর্মকর্তারা। রহস্যজনক এই হামলা অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে তদন্তে নেমেছে মার্কিন সংস্থাগুলো। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক কর্মকর্তা এধরনের অদৃশ্য শক্তি আক্রমণের পেছনে রাশিয়ার হাত রয়েছে বলে সন্দেহ পোষণ করছেন। আরেক প্রাক্তন কর্মকর্তা ধারণা করছেন, এর পেছনে চীনও জড়িত থাকতে পারে। গোয়েন্দারা বলছেন, এই রহস্যের জট খুলবেন তারা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply