sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » অন্ধকার কাটিয়ে আমেরিকা এখন আলোর পথে: বাইডেন




যুক্তরাষ্ট্রে করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে এবং অর্থনীতিকে চাঙা রাখতে এক লাখ ৮০ হাজার কোটি ডলারের আরও একটি প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ক্ষমতা গ্রহণের ১০০ দিনের মাথায় কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে তিনি এ ঘোষণা দেন। বাইডেন বলেন, অন্ধকার কাটিয়ে আমেরিকা এখন আলোর পথে। এ বছরের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর জো বাইডেনের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল করোনা মোকাবিলা। প্রথম ১০০ দিনে ১০ কোটি মানুষকে টিকার দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করে বিরাট সাফল্য দেখিয়েছেন তিনি। এরই মধ্যে আমেরিকায় ২২ কোটিরও বেশি মানুষ অন্তত একটি করে টিকার ডোজ নিয়েছেন। এ ছাড়া করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে জনগণকে দিয়েছেন একাধিক অর্থনৈতিক প্রণোদনা। এক মাসের কম সময়ের ব্যবধানে দুটি নতুন প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। বুধবার কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে নতুন করে কর্মজীবী, শিক্ষার্থী এবং পরিবারগুলোর জন্য আরও এক লাখ ৮০ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মুসলিম দেশ থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করে এবং প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে আবার যোগ দিয়ে বাইডেন প্রশাসন বহির্বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ও মর্যাদাকে ফিরিয়ে এনেছেন। আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের ঘোষণাও ছিল ঐতিহাসিক। অভ্যন্তরীণ এবং বহির্বিশ্বে দেশকে শক্ত অবস্থানে নিয়ে যেতে আমেরিকার অগ্রযাত্রায় জনগণের সহযোগিতা চান বাইডেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নীতি পাল্টিয়ে ১০০ দিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রকে অভিবাসনবান্ধব করার বাইডেন প্রশাসনের উদ্যোগেরও প্রশংসা করেছেন অনেকেই। এদিকে, অর্থনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বিগত ৭৫ বছরের মধ্যে তুলনামূলক বিচারে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রথম ১০০ দিনে আমেরিকার স্টক মার্কেট সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে। তবে দেশের অভ্যন্তরে একের পর এক বন্দুক হামলা এবং পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার ঘটনা বেকায়দায় ফেলেছে বাইডেন প্রশাসনকে। অনেকে বলছেন, ১০০ দিনে বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রকে কিছুটা হলেও বদলে দিয়েছেন। কারও কারও মতে, বাইডেনের সাফল্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্টকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে। এখন বাইডেন দেশকে কত দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন, তা সময়ই বলবে






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply