sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ভারতে ভ্যাকসিন ছাড়া সব সরঞ্জাম পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র




ভারতে ভ্যাকসিন ছাড়া সব সরঞ্জাম পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে ব্যবহৃত কাঁচামাল, করোনা পরীক্ষার কিট, ভেন্টিলেটর, পিপিই কিট, অক্সিজেন তৈরিতে ব্যবহৃত সরঞ্জাম পাঠাতে উদ্যোগ নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তবে তারা ভ্যাকসিনের ডোজ পাঠাবে কি না, সে বিষয় এখনও চূড়ান্ত করেনি। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ধুঁকছে ভারতের বেশ কয়েকটি শহর। বেড়েই চলেছে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা। দিল্লি, মহারাষ্ট্রের মতো শহরে সংক্রমণ যেন আটকানো যাচ্ছে না। সেই পরিস্থিতিতেও ভ্যাকসিন তৈরির কাঁচামাল রপ্তানি না করায় সমালোচনার মুখে পড়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। অবশেষে ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল দেশটি। রোববার এক টুইট বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, মহামারি শুরুর দিকে ভারত আমাদের হাসপাতালগুলোতে সহযোগিতা করেছিল। এখন ভারতের ক্রান্তিকালেও আমরাও সহায়তার হাত বাড়াতে চাই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুল্লিভান ও ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল করোনা আক্রান্ত দুই দেশকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে একজোট হয়ে এগিয়ে যাওয়ার কথা ব্যক্ত করেছেন। সে অনুসারে কোভিশিল্ড তৈরিতে প্রয়োজনীয় কাঁচামাল ও করোনার সব উপকরণ যত দ্রুত সম্ভব ভারতের কাছে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যাতে এই ভ্যাকসিন তৈরি করে রোগীদের পাশাপাশি প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের দেওয়া যেতে পারে। এদিকে ভারতে একটি ডেমোক্রেটিক পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান রো খান্না যুক্তরাষ্ট্রের অব্যবহৃত অ্যাস্ট্রেজেনিকার ভ্যাকসিন ভারতকে দিতে জোর দাবি জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে এখনও লাখ লাখ ডোজ অ্যাস্ট্রেজেনেকার ভ্যাকসিন মজুত রয়েছে। যেগুলোর ব্যবহার শুরু হয়নি। কারণ দেশটি এখনও সেসব ভ্যাকসিনর অনুমোদন দেয়নি। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, তারা পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন অনুমোদন দিয়েছে। তিনটি ওষুধ কোম্পানির ভ্যাকসিন আগামী সপ্তাহে চালু হচ্ছে। এদিকে যেসব দেশে করোনা বেশি তাণ্ডব চালাচ্ছে সেসব দেশে অ্যাস্ট্রেজেনেকার ভ্যাকসিন পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনকে চাপ প্রয়োগ করছে সেদেশের ভ্যাকসিন ব্যবসায়ী গোষ্ঠীরা। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস, রয়টার্স






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply