sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » চার স্পিনারে বাংলাজয়ের স্বপ্ন নিউজিল্যান্ডের




বিরুদ্ধ কন্ডিশনে খেলার চ্যালেঞ্জ নিয়েই বাংলাদেশ সফরে এসেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে মানসিকভাবেও প্রস্তুত তারা। চার স্পিনারে বাংলাজয়ের স্বপ্ন নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশের স্পিন ট্র্যাকে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের অমন খাবি খাওয়া দেখে, সফরে আসার আগে স্পিনারদের প্রস্তুতিতে বেশ জোর দিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। অজিদের মতোই চ্যালেঞ্জ থাকবে তাদের সামনে, সেটা জেনেই নিজেদের মাঠে প্রায় ২ সপ্তাহের ক্যাম্পে স্পিনারদের নিয়ে আলাদাভাবে কাজ করেছেন কিউই কোচ গ্যারি স্টিডও। এ সিরিজে স্পিনারদের বাড়তি দায়িত্বের কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন কিউই স্পিনার এজাজ প্যাটেল। তিনি বলেন, আমরা জানি, নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মতো দলের জন্য উপমহাদেশের কন্ডিশনে খেলা চ্যালেঞ্জিং। আমরা এমন একটা দলের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি যারা নিজেদের দেশে খুবই শক্তিশালী। যত দ্রুত সম্ভব খাপ খাইয়ে নিতে হবে। ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলার ধরন বদলে ফেলতে হবে। বিশ্বকাপ স্কোয়াডের বাইরের ক্রিকেটাররা সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশ সফরের ১৫ সদস্যের দলে। ইশ সোধি, মিচেল স্যান্টনার, টড অ্যাস্টলরা প্রথম সারির স্কোয়াডে প্রতিষ্ঠিত। আর তাই মূল একাদশে খুব একটা সুযোগ পান না এজাজ প্যাটেল। ৩ বছর আগে আন্তর্জাতিক অভিষেক হলেও মাত্র দুটি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন এ বাঁ-হাতি স্পিনার। তাই ঢাকায় স্পিন সহায়ক উইকেটে মুন্সিয়ানা দেখিয়ে নির্বাচকদের নজর কাড়তে চান ভারতীয় বংশোদ্ভূত এ কিউই ক্রিকেটার। আরও পড়ুন : ‘বাংলাদেশের কন্ডিশন বুঝেই প্রস্তুতি নিয়েছে নিউজিল্যান্ড’ এজাজ প্যাটেল বলেন, সাদা বলে আমাদের স্পিন বিভাগ কতটা শক্ত, সেটা সবাই জানে। সোধি, টড ওরা দুর্দান্ত। ওদের জায়গায় দলে সুযোগ পেয়েছি। এমন সুযোগের জন্য অপেক্ষায় থাকে স্পিনাররা। এশিয়ার মতো কন্ডিশনে আমার দায়িত্বও বেশি থাকবে। যদি বেশ কিছু উইকেট পাই, সেটা আমার ক্যারিয়ারের জন্য ইতিবাচক হবে। খেলার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি। সফররত নিউজিল্যান্ড স্কোয়াডে মোট ৪ স্পিনার আছে। শুধু এজাজ প্যাটেলই নন, মিরপুরের উইকেটে বাড়তি দায়িত্ব থাকবে কোল ম্যাককঞ্চি ও উইল ইয়াংদের কাঁধেও। অন্যদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলা কঠিন হবে বলে মনে করছেন কিউই তারকা খেলোয়াড় হেনরি নিকোলস। ক্রিকেট বিষয়ক জনপ্রিয় সাইট ক্রিকইনফোর সঙ্গে সোমবার (২৩ আগস্ট) নিকোলস বলেন, আপনারা হয়তো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের খেলা দেখেছেন। সম্ভবত ওই সিরিজের সবচেয়ে বড় স্কোরটি ছিল ১৩০ রানের। কিন্তু আমাদের দেশে টি-টোয়েন্টিতে আদর্শ রান হিসেবে ধরা যায় ১৮০-কে। তাই একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে মনে হয়, ওদের ওইরকম কন্ডিশনে খেলাটা কঠিন হবে অনেক। খুব সতর্ক হতে হবে ভালো খেলার ক্ষেত্রে। আরও বলেন, নিশ্চিতভাবে আমরা সবাই প্রস্তুত। অস্ট্রেলিয়া ওদের দেশে কীভাবে খেলেছে সেটা দেখাও আমাদের জন্য এক প্রকার অভিজ্ঞতা অর্জন হবে। সাধারণত অজিরা যেভাবে খেলে সেখানেও হয়তো সেটাই চেষ্টা করেছে। কিন্তু সফল হয়নি। কিন্তু আমরা, একটি দল হিসেবে ভালো কিছু শিখতে চাই। কারণ বিগত দুই সপ্তাহে আমরা ক্যাম্পে ভালো সময় কাটিয়েছি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply