sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » পরীমণি ও একার সদস্যপদ স্থগিত করেছে শিল্পী সমিতি




আগেই আভাস ছিল আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। হলোও তাই। এ দুই চিত্রনায়িকার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত করেছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। শনিবার বিকেল ৫টায় এক সংবাদসম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর। মিশা সওদাগর বলেন, গণমাধ্যমের মাধ্যমে জানতে পেরেছি শিল্পী সমিতির সদস্য চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একা দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে। এ বিষয়ে মামলাও চলছে। তাদের ব্যক্তিগত কোনো অনৈতিক ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের দায়িত্ব বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নেবে না। তাদের ব্যক্তিগত যাবতীয় কর্মকাণ্ডের দায়-দায়িত্ব শুধুমাত্র তাদেরই। এর সঙ্গে শিল্পী সমিতির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। যেহেতু সুনির্দিষ্ট অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সেহেতু বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সুনাম ও ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ন রাখতে যথাযথ বিধি মোতাবেক আপাতত তাদের সদস্য পদ সাময়িকভাবে স্থগিত রাখা হলো। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির গঠনতন্ত্রের ৬-এর ‘খ’ ও ৯-এর ‘গ’ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, সমিতির কোনো সদস্য যদি সমিতির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে কোনো কাজে লিপ্ত হয় সঙ্গে সঙ্গে তার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত হবে। তবে আদালতে যদি প্রমাণ হয় তিনি নির্দোষ, তাহলে ফিরে পাবেন পদ। আর যদি দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে আজীবনের জন্য সমিতির সদস্যপদ হারাবেন। সে কারণেই পরীমনি ও একার সদস্যপদ পুরোপুরি বাতিল না করে সাময়িক স্থগিত রাখা হয়েছে। এর আগে, পরীমণির বিষয়ে এক সাক্ষাৎকারে মিশা সওদাগর বলেছিলেন, শিল্পী সমিতি সবসময় শিল্পীদের পাশে থাকবে। এটা ব্যক্তিগত সমিতি না, শিল্পী সমিতি। সভাপতি হিসেবে শিল্পী সমিতির সংবিধান আমাকে সম্মানিত রাখতে হবে। সংবিধান যা বলবে তাই হবে। এ নিয়ে আমি কিছু বলতে পারছি না। সংবিধান পাশ কাটিয়ে যেতে পারব না। শিল্পীর ভালো কাজে সমিতি পাশে থাকবে। খারাপ কাজে পাশে থাকার প্রশ্নই ওঠে না বলেও জানিয়েছিলেন মিশা সওদাগর। শুক্রবার গণমাধ্যমে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানও পরীমণি ও একার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন গণমাধ্যমে। তিনি বলেন, অভিযুক্তরা শিল্পী সমিতির সদস্য হওয়ায় সমিতির ওপর দায় বর্তায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার। সেটিই দেখা গেল আজ।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply