sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » প্যারিসে এখনও বাসা খুঁজে পাননি মেসি




পরিবারের সঙ্গে মেসি।ছবি : সংগৃহীত বেশ কয়েক দিন হলো পরিবার নিয়ে প্যারিসে পাড়ি জমিয়েছেন লিওনেল মেসি। নতুন শহরে এখনও নিজেদের চাহিদামতো বাসা খুঁজে পাননি পিএসজি সুপারস্টার। তাঁর ক্লাব পিএসজি আপাতত তাঁকে বিলাসবহুল হোটেলেই রেখেছে। কিন্তু, স্থায়ীভাবে বাসা পাওয়া নিয়ে মধুর সমস্যায় আছেন রেকর্ড ছয় বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। মূলত ছেলেদের স্কুল থেকে কাছাকাছি এবং জিম-পুলসহ একটি নিরিবিলি বাসা খুঁজছেন মেসি। সংবাদমাধ্যম এএসের এক প্রতিবেদনে এমনটাই বলা হয়েছে। পিএসজির সঙ্গে চুক্তি সেরে পরিবার নিয়ে প্যারিসের হোটেল লে রয়্যাল মনচিআওতে উঠেছেন মেসি। পছন্দমতো বাসা খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত আপাতত এই হোটেলেই সময় কাটছে মেসি ও স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জোর। এএসের প্রতিবেদন অনুসারে, ফ্রান্সের রাজধানীতে তিন ছেলের স্কুল এবং কাছাকাছি দূরত্বে বাসা খুঁজছেন মেসি। তবে মেসি ও তাঁর স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জো নিশ্চিত হতে পারছেন না বাড়ি কিনবেন, নাকি ভাড়া নেবেন। ফরাসি সংবাদমাধ্যম লা প্যারিনিয়ানের খবর অনুযায়ী, প্যারিসের বিলাসবহুল এস্টেট এজেন্টরা মেসি এবং তাঁর পরিবারের জন্য বাসা দেখছেন। পিএসজিও তাঁদের বাড়ি খুঁজতেও সাহায্য করছে। যদিও মেসি ও রোকুজ্জো আদর্শ বাড়ি খোঁজা নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চান না। কারণ প্যারিসে তাঁদের অবস্থান অস্থায়ী ভেবে ভাড়া বাড়ির কথাই ভাবছেন তারকা দম্পতি। পিএসজিতে মেসির কিছু সতীর্থের প্যারিসে বাসা খুঁজে দেওয়া এজেন্সি ‘দানিয়েল ফেয়াউ’-এর মুখপাত্র আন্তোনিন টমাস বলেছেন, ‘আর দশজন সাধারণ গ্রাহকেরা যেমন সেবা পেয়ে থাকেন, তাঁরাও তেমনটাই চাইছেন। তারকা হিসেবে আলাদা করে বেশি কিছু চাইছেন না। বার্সেলোনায় যেমন ছিলেন, তেমন কিছুই তাঁদের চাহিদা। যেমন—একটা পরিষ্কার বাড়ি, কোনো সংস্কার করতে হবে না, একটা বাগান এবং সুইমিং পুল ও জিমের ব্যবস্থা। কিন্তু, প্যারিসে ভাড়া বাড়িতে সুইমিং পুল বের করা মুশকিল।’ ফরাসি সংবাদমাধ্যমটি বলছে, প্যারিসের পশ্চিমাঞ্চলের উপশহর নিউয়ি-সুর-সেনেতে বাসা নেওয়ার সম্ভাবনা আছে মেসির। কারণ, মেসির তিন ছেলে থিয়াগো, মাতেও ও সিরোর জন্য যেসব স্কুল দেখা হচ্ছে, সেগুলোর কাছেই জায়গাটি। তা ছাড়া পিএসজির মাঠ পার্ক দে প্রিন্সেসও কাছাকাছি। মেসির স্ত্রী সেখানে এরই মধ্যে ৮১৩ বর্গফুটের একটি বাড়ি দেখেছেন। যার ৩০০ বর্গফুটের বেশি একটি বাগান আছে, জিমের ব্যবস্থা আছে, ইনডোর পুল আছে। বাড়িটির মূল্য পড়বে ২৫ মিলিয়ন ইউরো। সবচেয়ে বড় কথা—মেসির ছেলেদের সম্ভাব্য স্কুলের দূরত্ব বাড়িটি থেকে ২০০ মিটার। তবে, এখনও কিছু নিশ্চিত নয়। ছেলেদের স্কুল থেকে আরও কাছাকাছি হয়, এমন বাসা পেতে সময় নিচ্ছেন এই দম্পতি। এদিকে দ্য মিরর জানিয়েছে, বর্তমানে লে রয়্যাল মনচিআওতে হোটেলে মেসির পরিবারকে রাখতে প্রতি রাতে ১৭ হাজার পাউন্ড ভাড়া গুনছে পিএসজি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ২০ লাখ টাকা। প্রতি রাতে ২০ লাখ টাকা দেওয়ার মতোই হোটেলই লে রয়্যাল মনচিআও। প্যারিসের খুব বিখ্যাত হোটেল এটি। যেখানে বিখ্যাত ব্যক্তিরাও প্যারিস ভ্রমণে এলে থাকেন। সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিল, ওয়াল্ট ডিজনি ও রবার্ট ডি নিরোসহ বহু বিখ্যাত মানুষ এই হোটেলে থেকেছেন। ২০১৭ সালে নেইমার পিএসজিতে আসার পর তাঁকেও এই হোটেলেই রাখা হয়েছে। দ্য সান জানিয়েছে, পাঁচ তারকা এই হোটেলটিতে সুইমিং পুল, ব্যক্তিগত সিনেমা হল, ছয়টি রেস্তোরাঁসহ রয়েছে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা। লিওনেল মেসি ওই হোটেলের বারান্দা থেকেই হাত নাড়িয়ে নতুন ভক্তদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply