Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » কাবুলের বিদ্যুৎকেন্দ্রে রকেট হামলা




আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের খইর খানেহ এলাকায় রকেট হামলার খবর জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম টলো নিউজ। কাবুলের বিদ্যুৎকেন্দ্রে রকেট হামলা আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের খইর খানেহ এলাকায় রকেট হামলার খবর জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম টলো নিউজ। টলো নিউজের বরাত দিয়ে রুশ সংবাদ মাধ্যম স্পুটনিক জানায়, বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় রাত নয়টাই এই রকেট হামলার হয়। এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, ছামতালা বিদ্যুৎকেন্দ্রে এই রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কেও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। কী উদ্দেশ্যে এই আক্রমণ, তাও স্পষ্ট নয়। কোনও গোষ্ঠী এখনও পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে আইএস-কে (ইসলামিক স্টেট-খোরাসান) এই হামলায় জড়িত থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। দুই দশক পর গেল ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এদিন তালেবানের ভয়ে দেশত্যাগে মরিয়া সাধারণ আফগানরা ভিড় করেন কাবুল বিমানবন্দরে। বিমানের চাকায় উঠে কেউবা কাঁটাতারের বেড়া পার হয়ে পালানোর সময় ঘটে হতাহতের ঘটনাও। আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে তালেবানরা তাদের বিজয় দাবি করে ১৭ আগস্ট। নিয়ন্ত্রণ নিলেও বিভিন্ন প্রদেশে তালেবানবিরোধী বিক্ষোভ চলতেই থাকে দেশটিতে। ১৮ আগস্টে জালালাবাদে তালেবানবিরোধী বিক্ষোভে নিহত হন তিনজন। দেশটিতে ক্রমেই অর্থনৈতিক সংকটের খবর সামনে আসতে থাকে। এরমধ্যেই হাজি মোহাম্মদ ইদ্রিসকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর করার খবর আসে ২৩ আগস্ট। বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি আফগানিস্তানে খাদ্যসংকটের কথা জানায় এরপরদিনই। কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩ মার্কিন সেনাসহ ২০০ জনের বেশি নিহত হওয়ার দিনটি ছিল ২৬ আগস্ট। আর মার্কিন সামরিক বাহিনী আইএস সদস্যকে লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালায় এরপরদিন। ৩১ আগস্টের মধ্যে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর থেকেই আফগানিস্তান দখলে নিতে মরিয়া ছিল তালেবান। মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ড আফগানিস্তান থেকে সেই সেনা প্রত্যাহার করে নেয় ৩০ আগস্টে। এদিকে পানশির নিয়ন্ত্রণে বিরোধীরা চেষ্টা করলেও তালেবান সদস্যরা পানশির উপত্যকা নিয়ন্ত্রণের দাবি করে। কাবুল বিমানবন্দর স্থানীয় সেবার জন্য আবার চালু হয় ৪ সেপ্টেম্বরে। এরমধ্যেই সরকার গঠনের তোড়জোড় চলতে থাকে দেশটিতে। আরও পড়ুনঃ অভিনব-উপায়ে-ভয়ংকর-ক্ষেপণাস্ত্রের-পরীক্ষা-চালাল-উ-কোরিয়া সব জল্পনা-কল্পনা ছাপিয়ে তালেবান অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ঘোষণা করে ৭ সেপ্টেম্বর। এরপর একে একে মন্ত্রীপরিষদ গঠন হয় দেশটিতে। মন্ত্রীপরিষদে নারীসদস্য না থাকায় এর জের ধরে নারীরা বিক্ষোভ করে কাবুলসহ বিভিন্ন দেশে। সেখান থেকে সাংবাদিকরা বিক্ষোভের ফুটেজ সংগ্রহ করতে গেলে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে নিপীড়নের ঘটনাও ঘটেছে। তবে এখনও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়নি দেশটিতে।এদিকে, ৯ সেপ্টেম্বর তালেবান সরকারের অধীনে প্রথম আন্তর্জাতিক ফ্লাইট কাবুল ছাড়ে। ১৩ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় আফগানিস্তানকে শতকোটি মার্কিন ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয়। আর ১৪ সেপ্টেম্বর দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় কান্দাহার শহরেও হাজারো আফগান নাগরিক বিক্ষোভ করেছেন। সবশেষ আফগানিস্তানে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে সদ্যঘোষিত তালেবান সরকারের গঠন নিয়ে সংগঠনটির নেতাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়েছে। তবে গেল এক মাসে এসেছে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন, হয়নি নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা এমনকি এখনও বিশ্ব সম্প্রদায়ের কাছ থেকে স্বীকৃতি মেলেনি তালেবানের।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply