Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » স্পেনকে হারিয়ে উয়েফা নেশনস লিগে চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স




নেশন্স লিগের নতুন রাজা ফ্রান্স। শ্বাসরূদ্ধকর ফাইনালে বেনজেমা, এমবাপ্পে ম্যাজিকে স্পেনকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ফরাসিরা। স্পেনকে হারিয়ে উয়েফা নেশনস লিগে চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স লা ফিউরিয়া রোজাদের দীর্ঘ দিনের শিরোপা জয় করতে না পারার আক্ষেপ বাড়িয়ে, মিলানে প্রথমবারের মত নেশন্স লিগের শিরোপা জিতেছে ফ্রান্স। প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপ,ইউরো ও নেশন্স লিগ তিনটিই জয়ের কীর্তি গড়লো দিদিয়ের দেশমের দল। সান সিরোর আকাশে বাতাসে শুধুই উৎসব। নেশন্স লিগের আদলে এ যেন বিশ্বকাপের ফাইনাল। ইউরোপের দুই পাওয়ার হাউস স্পেন ও ফ্রান্স মহারণ। ৫৫টি দেশের জমজমাট লড়াই শেষে দ্বিতীয় আসরের ফাইনালের মঞ্চে লেস ব্লু ও লা ফিউরিয়া রোজা। তারুণ্য বনাম অভিজ্ঞতার লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত জয় হয়েছে হুগো লরিস, এমবাপ্পেদের। শিরোপার মঞ্চে বিজয়ী বীরদের উল্লাসে কেঁপেছে ইতালির আকাশ বাতাস। ফরাসি বিপ্লবের কাছে ম্লান হয়েছে স্পেনের দীর্ঘ প্রতীক্ষা। একপাশে পগবা, এমবাপ্পেদের জয়ের হুঙ্কার। অন্যপাশে বুসকেটস , সারাবিয়াদের এত কাছে এসেও না পাওয়ার হতাশা ছুয়ে গেছে গ্যালারিতে থাকা ফরাসি সমর্থকদের। শুরুতে লিড, বল দখলে এগিয়ে থেকেও না পাওয়ার কষ্ট সঙ্গি হয়েছে স্পেনের। প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপ, ইউরো ও নেশন্স লিগ জয়ের অনন্য কীর্তি গড়ে তখন উল্লাসে মাতোয়ারা ফ্রান্স। আরও পড়ুন: নতুন মাইলফলকে রোনালদো এর আগে ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য ছিলো স্পেনের। তবে, সান সিরোতে শুরুতে সুযোগ এসেছিলো ফ্রান্সের। বেনজেমাকে গোল করতে দেননি স্প্যানিশ ডিফেন্ডাররা। ১১ মিনিটে সুযোগ পেয়েছিলেন পাবলো সারাবিয়া। কিন্তু লক্ষ্য পূরণে সফল হননি। আক্রমণ আর পাল্টা আক্রমণে শেষ হয় প্রথমার্ধ। দ্বিতীয়ার্ধে আরো আগ্রাসী হয়ে ওঠে দু'দল। অবশেষে ৬৪ মিনিটে প্রথম গোলের সৌরভ ছড়ায় স্পেন। মিকেল ওইয়ারসাবালের গোলে এগিয়ে যায় এনরিকের শীষ্যরা। দু'মিনিট পরই চরম নাটকীয়তায় রূপ নেয় ম্যাচ। ফ্রান্সের হয়ে দুর্দান্ত গোলে সমতা ফেরান করিম বেনজেমা। সমতা ফিরিয়েই যেন হুশ ফেরে ফরাসিদের। একের পর এক আক্রমণে যায় এমবাপ্পে, বেনজেমারা। স্পেনও চেষ্টা করেছে। কিন্তু ফিনিশিংয়ে ব্যর্থতায় কপাল পুড়েছে ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। উল্টো ৮০ মিনিটে চমতকার গোলে ফরাসি সমর্থকদের ঘোরের রাজ্যে নিয়ে যান এমবাপ্পে। শুরুটায় অফসাইডের শঙ্কা থাকলেও,ভিএআরে হাসি ফোটে ফরাসিদের মুখে। শেষ পর্যন্ত শত চেষ্টা করেও আর গোল করতে পারেনি স্পেন। স্প্যানিশ দূর্গ গুড়িয়ে দিয়ে উয়েফা নেশন্স লিগের দ্বিতীয় আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় ফ্রান্স।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply