Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » তালেবান নিয়ে ভারতের পরিকল্পনা জানালেন জয়শংকর




কাবুলের তালেবান সরকারকে তাড়াহুড়ো করে স্বীকৃতি দেবে না ভারত। এমনটাই জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর। আফগানিস্তানে চলমান অবস্থার গভীর প্রভাব পড়বে এই অঞ্চলে এমনটাও মন্তব্য করেন তিনি। ইউএস-ইন্ডিয়া স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারশিপ প্রোগ্রামের শীর্ষ বৈঠকে বক্তব্য শুক্রবার (১ অক্টোবর) তিনি বলেন, আফগানিস্তান নিয়ে দুটি বিষয়ে চিন্তিত ভারত। প্রথমত, সেখানে সবাইকে নিয়ে সরকার গঠিত হবে কি না। দ্বিতীয়ত, আফগানিস্তানের মাটিকে জঙ্গিরা ব্যবহার করতে পারবে কি না। তিনি বলেন, আমরা উভয়েই একটি বিষয়ে উদ্বিগ্ন। আমরা লক্ষ রাখছি, আফগানিস্তানের মাটিতে জঙ্গিরা আশ্রয় পাচ্ছে কি না। এ ছাড়া আমেরিকার সঙ্গে কয়েকটি বিষয়ে সিদ্ধান্তের মিল থাকলে কিছু বিষয়ে ভারত তাদের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে বলেও জানিয়েছেন জয়শংকর। তিনি বলেন, আমাদের অভিজ্ঞতা অনেক ক্ষেত্রে আমেরিকার চেয়ে আলাদা। আমরা এই অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদের শিকার হয়েছি।' এদিকে ভারতের সঙ্গে বেসামরিক বিমান পরিবহন ব্যবস্থা চালু করতে আফগানিস্তানের তালেবান সরকার আগ্রহী। এ বিষয়ে ভারতের ডিরেক্টর জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন অরুণ কুমারকে একটি চিঠি লিখেছেন আফগানিস্তানের বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী হামিদুল্লাহ আখুন্দজাদা। চিঠিতে তিনি লিখেন, দিল্লি ও কাবুলের মধ্যে আরিয়ানা আফগান এয়ারলাইন ও ক্যাম এয়ারকে বিমান চালাতে অনুমতি দেওয়া হোক। যদিও ভারতের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে এখনো কিছু জানানো হয়নি। এদিকে ইসলামি পরিবেশ তৈরি না হওয়া পর্যন্ত নারীদের আফগানিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বা কাজ করার অনুমতি দেওয়া হবে না, নিউইয়র্ক টাইমসসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এ খবরকে গুজব বলে নাকচ করে দিয়েছে তালেবান সরকার। আরও পড়ুন: ইয়েমেনে সংঘর্ষে নিহত আরও ১০০ এক টুইটারের বরাতে নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছিল, নারীদের ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ কঠোর করে তালেবান সরকারের নিয়োগ দেওয়া কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য সোমবার বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যমে এ খবর প্রকাশের পর কাবুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছে, ভুয়া একটি টুইটার অ্যাকাউন্টের বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে নিউইয়র্ক টাইমস ওই খবর ছাপিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, সামাজিক মাধ্যমে কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্যের কোনো অ্যাকাউন্ট নেই। মূলত মানুষকে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করতে এসব ভুয়া অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা হচ্ছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply