Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ১০০টি চ্যানেল মাত্র ৩০০ টাকায়, এভাবে চলবে না: প্রতিমন্ত্রী




পৃথিবীর অন্য দেশে প্রতিটি টেলিভিশন চ্যানেল দেখার জন্য আলাদা করে টাকা খরচ করতে হলেও বাংলাদেশে মাত্র ৩০০ টাকায় ১০০টি চ্যানেল দেখা যায়। তবে এভাবে আর চলবে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) সচিবালয়ে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের (বিজেসি) প্রতিনিধি দলের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ মন্তব্য করেন তিনি। এ সময় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি ১০দিন কানাডায় থেকে আসলাম, আমি বাংলাদেশের একজন নাগরিক। আমি একজন সংসদ সদস্য, একজন প্রতিমন্ত্রী, তারচেয়ে বড় কথা আমি বাঙালি। আমি কানাডার টরেন্টো, মন্ট্রিল, অটোয়া, ভ্যানকুভার কোথাও টাকা ছাড়া একটা নিউজও দেখতে পারলাম না। আর আমার বাংলাদেশে, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে, বঙ্গবন্ধুর কন্যার বাংলাদেশে সারা পৃথিবীর ৭০০ কোটি মানুষ এসে ১০০টি চ্যানেল দেখতে পারবে মাত্র ৩০০ টাকা দিয়ে। এভাবে বাংলাদেশ চলবে না। তিনি আরও বলেন, আমরা একটি পরিবার, আমরা সবাই মিলে এই ক্লিন ফিড বাস্তবায়ন করব। বিদেশি বিজ্ঞাপন এবং বিদেশি সবকিছুই আমাদের নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী পরিচালনা করতে হবে। আরও পড়ুন: দেখা যাচ্ছে ২৪ বিদেশি চ্যানেল পরে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দেশের মিডিয়া ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থে আইন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। একটি মহল নানা অজুহাতে আইন কার্যকর করতে দেয়নি। এটি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর সুযোগ নেই। একটি পক্ষ বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করেছে তা নয়, সেটিকে পুঁজি করে কেউ কেউ বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা করেছিল, সেগুলো হালে পানি পায়নি। আমরা এবার বদ্ধপরিকর আইন কার্যকর করতে। কেউ বিভ্রান্তি ছড়ালে সেটির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যেসব চ্যানেল ক্লিনফিড পাঠায় প্রথমে কেউ সেগুলো না চালালেও এখন চালানো শুরু করেছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমরা আজকেও (মঙ্গলবার) সময় দিচ্ছি, যেসব চ্যানেল ক্লিনফিড হিসেবে আসে সেগুলো চালানোর জন্য। যেসব চ্যানেল ক্লিনফিড আসা সত্ত্বেও চালানো হচ্ছে না সেজন্য দেশের বিভিন্ন জায়গায় আগামীকাল (বুধবার) থেকে মোবাইল কোর্ট চালানো হবে। কেউ যদি কেবল অপারেটরের শর্ত না মানে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা আজকেও সময় দিচ্ছি। হাছান মাহমুদ বলেন, ফিড ক্লিন করতে প্রযুক্তি লাগবে বলে বলা হলেও সেগুলো ১০ বছর আগে লাগতো, এখন খুবই সহজ। ফিড ক্লিন করে রিয়েল টাইমে সম্প্রচার না করে প্রয়োজনে ১০ মিনিট পরে সম্প্রচার করেন। মিডিয়া ইন্ডাস্ট্রিতে যেরকম আয় উপার্জন হওয়ার কথা ছিল ক্লিনফিড না থাকায় সেটি হচ্ছিল না। যখন ক্লিনফিড বাস্তবায়িত হবে তখন কেউ এই অজুহাত দিতে পারবে না যে ইনকাম নেই তাই কর্মীদের বেতন দিতে পারছি না।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply