Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ভারতকে হারাতে ১২ জনের দল ঘোষণা পাকিস্তানের




অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ দিয়ে মরুর বুকে শুরু হয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল যুদ্ধ। তবে সব ছাপিয়ে আলোচনায় পাক-ভারত ম্যাচ। হবেই না-বা কেন! ক্রিকেটের ২২ গজে চিরবৈরী দুই প্রতিবেশী দেশের মহারণ বলে কথা। যে লড়াইয়ের দিকে চোখ সারা বিশ্বের। এদিকে রোববার (২৪ অক্টোবর) বিরাট কোহলিদের বিপক্ষে নামার একদিন আগেই দল ঘোষণা করেছে বাবর আজমের পাকিস্তান। তবে শনিবার (২৩ অক্টোবর) ঘোষিত দলে ১২ জনের নাম রাখা হয়েছে। যেখান থেকে সেরা একাদশ বাছাই করা হবে। বিশ্বকাপের মঞ্চে এখন পর্যন্ত ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। তবে এবার বিরাট কোহলিদের হারিয়েই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শুরু করতে চায় বাবর আজমরা। আর তাই হাইভোল্টেজ এই ম্যাচে অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের মিশেলে দল সাজিয়েছে পাকিস্তান। তবে প্রত্যাশিতভাবে দলে অন্যরা সুযোগ পেলেও বাদ পড়েছেন সরফরাজ আহমেদ। এদিকে মহারণের আগে বিরাট কোহলির টিম ইন্ডিয়াকে হুমকি দিয়ে রাখলেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম। তিনি বলেন, অতীতে কী হয়েছে সব ভুলে যান। এবার ইতিহাস আমরাই লেখব। মুখোমুখি লড়াইয়ে নামার আগে বাবরের এ হুঙ্কার উত্তাপ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। বাবর-শাহীনদের বিপক্ষে নামার আগে প্রস্তুতিতে পূর্ণ মনোযোগ কোহলি বাহিনীরও। পাক অধিনায়ক বলেন, বড় প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে বেশি জরুরি হচ্ছে বিশ্বাস। দল হিসেবে আমরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। অতীতে কী হয়েছে তা নিয়ে ভাবতে রাজি নই। তাদের এবার আমরা হারাবই। আরব আমিরাতের মাঠ বলতে গেলে পাকিস্তানের জন্য হোম ভেন্যু। কারণ বিগত তিন-চার বছর ধরে এখানে নিয়মিত সিরিজ এবং ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট খেলছে তারা। বাবরও ইঙ্গিত দিলেন, এখানকার উইকেট কেমন হয় সে বিষয় আমরা জানি। শেষ তিন চার বছর ধরে এখানে খেলছি আমরা। এ পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে অভ্যস্ত আমাদের ব্যাটাররাও। তবে রোববার যে ভালো খেলবে সেই জিতবে। আমাকে যদি জিজ্ঞেস করা হয়, আমার বিশ্বাস আমরাই জিতব।’ তবে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ মানেই যে বাড়তি চাপ তাও মানছেন বাবর। তিনি বলেন, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা। ক্রিকেটার এবং দলের ওপর বাড়তি চাপ রয়েছে। তবে চাপ সামলে স্বাভাবিক খেলাটাই খেলতে চাই। ২০১৯ এর ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর সংযুক্ত আরব আমিরাতেই প্রথমবার মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান। দীর্ঘদিন ধরেই রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সিরিজও বন্ধ রয়েছে। তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) আয়োজিত কোনো টুর্নামেন্ট ছাড়া দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ থাকে না। পাকিস্তানের ১২ সদস্যের দলে সুযোগ পেলেন যারা বাবর আজম (অধিনায়ক), মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, ফখর জামান, আসিফ আলি, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, হাসান আলি, শাহিন আফ্রিদি, হারিস রউফ এবং হায়দার আলি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply