Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » হ্যাটট্রিকের পথে পাপন




আট বছর আগেও বিসিবির নির্বাচনে যে উত্তাপ ছিল, কালের পরিক্রমায় তা পরিণত হয়েছে সাদামাটায়। দেশের ক্রিকেটে নিয়মরক্ষার সেই নির্বাচন আজ। বিসিবি কার্যালয়ে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন কাউন্সিলররা। যেখানে ক্লাব ক্যাটাগরি থেকে পরিচালক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বর্তমান সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গত ৯ বছর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ কোটার পরিচালক হিসেবে বোর্ড সভাপতি ছিলেন তিনি। এবারই প্রথম ক্লাব ক্যাটাগরি থেকে সরাসরি পরিচালক পদে নির্বাচন করছেন। রেকর্ড চতুর্থ মেয়াদে বোর্ড সভাপতিও নির্বাচিত হবেন তিনি। কারণ প্রার্থীদের মধ্যে পাপনকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো যোগ্যতাসম্পন্ন কেউ নেই। বিসিবির নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরুর আগেই সভাপতি পাপন ঘোষণা দেন- এবার কোন প্যানেল রাখা হবে না। নির্বাচনে কিছুটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা ফেরাতে এই ঘোষণা দেওয়া হলেও সেভাবে হাইভোল্টেজ প্রার্থী ভোটের মাঠে নেই। এক-দু'জন ছাড়া সবাই পুরোনো মুখ। ক্লাব ক্যাটাগরি থেকে নির্বাচিতও হবেন তারাই। এই বিভাগের ৫৮টি ভোটের ৪২টির নিয়ন্ত্রক একটি গ্রুপ। এই প্রভাবশালী মহলের আশীর্বাদ ছাড়া কারও পক্ষেই নির্বাচনে জেতা সম্ভব হবে না। যে কারণে ২৫ থেকে ৩০ বছরের পুরোনো ক্রিকেট সংগঠকদেরও স্রোতের সঙ্গে যেতে হচ্ছে। আজকের নির্বাচনের মূল আকর্ষণ থাকবে ক্লাব ক্যাটাগরিতেই। গুঞ্জন আছে, বিগত কমিটির একজন সিনিয়র পরিচালক বাদ পড়তে যাচ্ছেন। ক্লাব ক্যাটাগরিতে ১৬ জন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। নির্বাচিত হবেন ১২ জন পরিচালক। নাজমুল হাসান পাপন, এনায়েত হোসেন সিরাজ, মাহবুব উল আনাম, নজিব আহমেদ, মঞ্জুর কাদের, ইসমাইল হায়দার মল্লিক, ফাহিম সিনহা, ওবেদ রশীদ নিযাম, গাজী গোলাম মুর্তজা, মো. সালাহউদ্দিন চৌধুরী, ইফতেখার রহমান, মনজুর আলম পরিচালক হিসেবে নির্বাচিত হতে পারেন। যদিও ক্রিকেটপাড়ার গুঞ্জন, মোহামেডানের কাউন্সিলর মাহবুব উল আনামকে কোরামে রাখা হচ্ছে না। কিন্তু বাস্তবতা বলে ভিন্ন কথা। বিসিবি সভাপতি পাপনের পছন্দের ক্রিকেট সংগঠক মাহবুব আনাম। ঢাকা বিভাগে দুটি পরিচালক পদের বিপরীতে নাঈমুর রহমান দুর্জয়, তানভীর আহমেদ টিটু, সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম ও মো. খালিদ হোসেন বৈধ প্রার্থী। যদিও মাদারীপুরের কাউন্সিলর খালিদ প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর লিখিত দিয়ে নির্বাচন থেকে নিজেকে প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন। আরেক প্রার্থী আশফাকুল ভোটের লড়াই থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেও ব্যালট পেপারে চারজনের নামই থাকবে। প্রিজাইডিং অফিসার ফরহাদ হোসেন বলেন, 'প্রত্যাহারের যে সময়সীমা ছিল তার পরে প্রত্যাহার করেছেন উনারা। যে কারণে ব্যালটে চলে আসবে। নির্বাচনে আসবে কিনা এটা একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার।' প্রিজাইডিং কর্মকর্তা আরও বলেন, 'মোট ভোটার ১৭৩ জন হলেও ভোট দিচ্ছেন ১২৭ জন। কিন্তু বাকিরা ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে না কারণ ওখানে নির্বাচিত হয়ে গেছে। ৫৭ জন ই-ভোট ও পোস্টাল ব্যালটে ভোট দিয়েছেন। বাকিরা সশরীরে এসে ভোট দেবেন।' বিকেল ৫টায় ভোট গ্রহণ শেষে পোস্টাল ও ই-ভোট গণনা করা হবে বলে জানান তিনি। যেমনই হোক, বিসিবি সভাপতি পাপন আশা করেন ভোটাররা যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করবেন, 'আমি আপনাদের কাছে একটা অনুরোধই করব। কে কোন দল, কোন গ্রুপ সব ভুলে গিয়ে, কে কার মানুষ সব ভুলে গিয়ে আপনারা যাকে মনে করবেন সঠিক ব্যক্তি, ক্রিকেটের জন্য ভালো তাকেই ভোট দেবেন। এই হলো আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ। কে হারলাম, কে জিতলাম তাতে কিছু যায়-আসে না, কারণ আমরা সব এক। আর এখানে কোনো প্যানেল না থাকায় সব এক।' বিসিবির পরিচালনা পর্ষদ ২৫ জনের হলেও ভোট হচ্ছে ১৫টি পরিচালক পদে। চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট ও রংপুর বিভাগ থেকে সাতজন পরিচালক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ থেকে পরিচালক মনোনীত হয়েছেন জালাল ইউনুস ও আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply