Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » শিল্পীদের মেধাস্বত্ব সংরক্ষণে সরকার বদ্ধপরিকর’




সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের মাধ্যমে শিল্পীদের অধিকার সুরক্ষায় বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। যার অংশ হিসেবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ মেধাস্বত্ব অফিস নন্দিত ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর সৃষ্টিকর্মকে সংরক্ষণের পাশাপাশি এর বাণিজ্যিক ব্যবহার হতে রয়্যালটি আদায় তিনি বলেন, মেধাস্বত্ব নিশ্চিতকরণ ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের লক্ষ্যে এটি এক অসাধারণ অর্জন। মাত্র এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে কোনো শিল্পী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে পাঁচ হাজার ডলার উপার্জন করতে পারেন এবং টেলিফোন কোম্পানির মাধ্যমে পাঁচ লাখ টাকা আয় করতে পারেন। এ উদ্যোগের মাধ্যমে সেটি প্রমাণ হয়েছে। বুধবার (১৩ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের জাতীয় গ্রন্থাগার মিলনায়তনে মেধাস্বত্ব অফিস আয়োজিত মরহুম কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মেধাস্বত্ব নিবন্ধনকৃত গানের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম হতে অর্জিত অর্থের রয়্যালটি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, নতুন মেধাস্বত্ব আইন কেবিনেটে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। নতুন আইনে মেধাস্বত্বের আওতা, প্রণেতার আর্থিক অর্জন সুসংহতকরণ ও এ বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের ক্ষেত্রে বাস্তবসম্মত উদ্যোগের নিশ্চয়তা বিধান করা হয়েছে। শিল্পীদের কল্যাণে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, কোভিডকালে প্রায় ২০ হাজার শিল্পীকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে অনুদান প্রদান করা হয়েছে। তাছাড়া প্রান্তিক শিল্পীদের আর্থিক সুরক্ষায় সংগীত বিমা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আর্থিক পরিমাণ বিবেচনায় এটি কম হতে পারে, কিন্তু এর মাধ্যমে সরকারের পক্ষ হতে শিল্পীদের এক ধরণের স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে, যা অর্থ দিয়ে পরিমাপ করা সম্ভব নয়। রেজিস্ট্রার অব কপিরাইটস জাফর রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ কপিরাইট বোর্ডের চেয়ারম্যান সাবিহা পারভীন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া, মিসেস আইয়ুব বাচ্চু (ফেরদৌস আক্তার), এলআরবি ব্যান্ডের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনাসহ সূচনা বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ মেধাস্বত্ব অফিসের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ রায়হানুল হারুন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply