Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » শিষ্যকে খুনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হলেন ভারতের কথিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং




শিষ্যকে খুনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত রাম রহিম

। দেশটির হরিয়ানার পঞ্চকুলার বিশেষ সিবিআই আদালত রাম রহিম-সহ আরও পাঁচজনকে খুনের মামলায় দোষী সাব্যস্ত করেছে। ধর্ষণের দায়ে ইতিমধ্যেই ২০ বছর জেলের সাজা ভোগ করছেন রাম রহিম। ২০০২ সালের ১০ জুলাই কুরুক্ষেত্রের খানপুর কোলিয়া গ্রামে রাম রহিমের শিষ্য রণজিৎ সিংহের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এরপর রাম রহিমের বিরুদ্ধে বাবাকে খুনের অভিযোগ জানান মৃত রণজিৎ সিংহের ছেলে। সিবিআই-এর দাবি, এই খুনের পেছনে হাত ছিল রাম রহিমের। কারণ, রাম রহিম তার শিষ্যাদের উপর যৌন নির্যাতন চালাতেন। তার সন্দেহ ছিল, এই খবর বাইরে প্রকাশের পেছনে রণজিৎ সিংহের হাত রয়েছে। তাই তাকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়। ২০১৭ সালের অগস্ট মাসে আশ্রমের মধ্যে দুই শিষ্যাকে ধর্ষণ এবং এক সাংবাদিকের খুনের দায়ে রাম রহিমকে ২০ বছর জেলের সাজা দেয় আদালত। বর্তমানে রোহতকের সুনারিয়া জেলে আছেন রাম রহিম। উল্লেখ্য, ধর্ষণের অভিযোগে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ভারতের বিতর্কিত ‘ধর্মগুরু’ গুরমিত রাম রহিম সিং ১৯৬৭ সালের ১৫ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন। তিনি জন্মেছিলেন রাজস্থানের শ্রীগঙ্গানগর জেলার শ্রীগুরুসর মোদিয়া গ্রামে। ২৩ বছর বয়সে ডেরা সচ সউদার প্রধান হওয়ার পর হঠাৎ করেই যেন বদলে যায় তার জীবন। ১৯৪৮ সালের ২৯ এপ্রিল ডেরা সচ সউদা প্রতিষ্ঠিত হয়। এর প্রধান কার্যালয় হরিয়ানার সিরসা জেলায়। ভারতজুড়ে এই ডেরার প্রায় অর্ধশত আশ্রম রয়েছে। ডেরাপ্রধানের দায়িত্ব নেওয়ার পর রাম রহিম হয়ে ওঠেন ব্যতিক্রমী এক ‘ধর্মগুরু’। সূত্র : আনন্দবাজার, জি২৪






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply