Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » জলবায়ু মোকাবিলায় ধনী দেশগুলোকে আরও অর্থ দিতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী




বহুল প্রত্যাশিত কপ২৬ সম্মেলনে এখন পর্যন্ত পাওয়া প্রতিশ্রুতির মাত্রা সন্তোষজনক নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় উন্নয়নশীল দেশগুলোকে অবশ্যই আরও অর্থসহায়তা দিতে হবে বলে দাবি করেছেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিস্থিতির অগ্রগতির জন্য বিশ্বনেতাদের হাতে এখনও সময় আছে। তবে এ নিয়ে আমরা খুব বেশি আশাবাদী নই। গত বুধবার (১০ নভেম্বর) চীনা সংবাদমাধ্যম সিজিটিএন’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশি প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে ড. মোমেন ইউরোপ সফরে রয়েছেন। সেখানে সম্ভাব্য একটি জলবায়ু চুক্তির জন্য বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। সিজিটিএন’কে মোমেন বলেন, আমরা আশা করছিলাম, বিশ্বনেতৃত্ব হয়তো তাপমাত্রা বৃদ্ধি এক দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমিত রাখার প্রতিশ্রুতি দেবে, লক্ষ্যমাত্রাটি কীভাবে অর্জন করা যায় তার একটি রোডম্যাপ থাকবে। দুঃখজনকভাবে, সেটি হয়নি। আরেকটা বড় সমস্যা হলো তহবিলের অভাব। আরও পড়ুন: জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকিহ্রাসে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল: তথ্যমন্ত্রী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্যারিস জলবায়ু চুক্তি অনুসারে উন্নয়নশীল দেশগুলো ধনীদের কাছে চলতি বছর থেকে বার্ষিক ১০০ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ চেয়েছিল। কিন্তু তাতে বিলম্ব হচ্ছে। ধনী দেশগুলো বলছে, ২০২৩ সাল থেকে হয়তো এটি শুরু হতে পারে। সেটি মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন, দরিদ্র দেশগুলো যেন আরও বেশি নবায়নযোগ্য শক্তি ব্যবহারের দিকে যেতে পারে, সেজন্য উন্নত দেশগুলোকে অবশ্যই ‘প্রযুক্তি স্থানান্তর’ এবং ‘রেয়াতি অর্থায়ন’-এ এগিয়ে আসতে হবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply