Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » প্রতারণার অভিযোগ রেগে আগুন শিল্পা




রেগে আগুন শিল্পা

এনে শিল্পা শেঠি ও রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক ব্যক্তি। শনিবার (১৩ নভেম্বর) বান্দ্রা পুলিশ স্টেশনে বিনিয়োগের দেড় কোটি টাকা ফেরত চেয়ে নিতিন বরাই নামে ওই ব্যক্তি মামলাটি করেন। মামলার খবর পেয়েই রেগে যান শিল্প ও তার স্বামী রাজ। পরে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জবাব দেন শিল্পা শেঠি। শিল্পা লিখেন, 'ঘুম থেকে উঠে দেখলাম আমার আর রাজের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে আমি হতবাক। কারণ, এসএফএল ফিটনেসের মালিক কাসিফ খান। তার নামেই সব রাইট কেনা রয়েছে। তিনিই পুরো ভারতে জিম খোলার রাইট কিনেছেন। তিনিই সব ডিল করেছেন এবং তার কাছেই অন্যদের বিনোয়োগ করা টাকা আটকে রয়েছে। এই বিষয়ে আমরা কোনো আর্থিক লেনদেন সম্পর্কে জানি না।’ তিনি লিখেন, `আমরা এক টাকাও কারো থেকে নেইনি। সব ফ্যাঞ্চাইজির ডিল কাসিফ নিজেই করেছে। এমনকি এই কোম্পানি বন্ধও হয়ে গেছে ২০১৪ সালে।' সুনাম ও খ্যাতি নষ্ট হচ্ছে জানিয়ে বলিউড নায়িকা আরও লিখেন, বিগত ২৮ বছর ধরে আমি ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক কষ্ট করে নিজের জায়গা করেছি। সেই সুনাম ও খ্যাতি নষ্ট হচ্ছে যা আমার কাছে খুবই বেদনাদায়ক। শুধু সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্যই আমাকে এই মামলায় টানা হচ্ছে। ভারতে একজন গর্বিত নাগরিক হিসেবে আমার অধিকার রক্ষা করা উচিত। আরও পড়ুন: বলিউডে নির্মিত হচ্ছে ‘মানি হেইস্ট’! এদিকে ওই ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানায়, ২০১৪ সালের জুলাই মাসে এসএফএল নামক একটি ফিটনেস কোম্পানির পরিচালক কাসিফ খান, শিল্পা শেঠি, রাজ কুন্দ্রাসহ আরও অনেকে নিতিন বরাইকে আশ্বস্ত করেন যে, এই কোম্পানিতে দেড় কোটি টাকা বিনিয়োগ করলে তিনি এই ব্যবসায় লাভ করতে পারবেন। শিল্পা, কাসিফ ও রাজের পক্ষ থেকে তাকে জানানো হয়েছিল ওই ফিটনেস কোম্পানির একটি ফ্র্যাঞ্চাইজি, জিম ও স্পা‘র মালিকানা তাকে দেওয়া হবে। পুণেতে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি খোলার কথা ছিল ওই ব্যক্তির। কিন্তু টাকা বিনিয়োগের পরও তিনি ওই মালিকানা পাননি। এরপর নিজের বিনিয়োগের দেড় কোটি টাকা ফেরত চান নিতিন বরাই। তখনই শুরু বিপত্তি। ওই ব্যক্তির দাবি, এরপর থেকেই একের পর এক হুমকি পেতে থাকেন তিনি। পরে তার অভিযোগের ভিত্তিতেই বান্দ্রা থানায় চারটি ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। ইতোমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে মুম্বাই পুলিশ






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply