Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » পারফরম্যান্সের মানদণ্ডে টুর্নামেন্টের সেরা চার দলই উঠেছে শেষ চারে।




সেরা চার দলই শেষ চারে মাঠের লড়াই শুরুর আগে এবারের টি ২০ বিশ্বকাপে প্রায় সব ক্রিকেটবোদ্ধার ফেভারিটের তালিকায় ছিল তিনটি নাম-ভারত, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেমিফাইনালে উঠতে পারেনি হট ফেভারিট ভারত ও গতবারের চ্যাম্পিয়ন উইন্ডিজ। তবে সুপার টুয়েলভ থেকে ভারতের বিদায় ও উইন্ডিজের ভরাডুরি অপ্রত্যাশিত হলেও অঘটন নয়।

সুপার টুয়েলভের ম্যারাথন লড়াই শেষে বিশ্বকাপ এখন চার দল ও তিন ম্যাচের টুর্নামেন্ট। আগামীকাল আবুধাবিতে প্রথম সেমিফাইনালে দেখা হচ্ছে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের। পরদিন দুবাইয়ে দ্বিতীয় সেমিতে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। ১৪ নভেম্বর দুবাইয়ে ফাইনাল। সেমিফাইানলের আগে চার দলের ফর্মের বিশ্লেষণ বলছে, পাকিস্তানই সবচেয়ে এগিয়ে। এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের একমাত্র অপরাজিত দল তারা। সুপার টুয়েলভে পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিই জিতেছে বাবর আজমের দল। বাকি তিন দল পাঁচ ম্যাচের মধ্যে জিতেছে চারটি করে। টি ২০ র‌্যাংকিংয়ে ইংল্যান্ড এখন শীর্ষে, দুইয়ে পাকিস্তান। পারফরম্যান্সেও তার নিখুঁত প্রতিফলন। এ দুটি দলই হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। বাকি দুই সেমিফাইনালিস্টও পিছিয়ে নেই। র‌্যাংকিংয়ের তৃতীয় দল ভারতকে টেক্কা দিয়েছে চারে থাকা নিউজিল্যান্ড। পাঁচে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকাকে নেট রানরেটে পেছনে ফেলে সেমির টিকিট কেটেছে ছয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়া। দুই গ্রুপে তৃতীয় হয়েছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। অর্থাৎ, র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ ছয় দলের মধ্যেই মূল লড়াইটা সীমাবদ্ধ ছিল। শুধু দক্ষিণ আফ্রিকাই নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতে পারে। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো চার ম্যাচ জিতেও রানরেটের হিসাবে বাদ পড়েছে তারা। তবে মনে রাখতে হবে, মুখোমুখি লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাঁচ উইকেটে হেরেছিল প্রোটিয়ারা। এছাড়া শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ রানে জেতার আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল তাদের বিদায়। ভারতকে কোনোভাবেই দুর্ভাগা বলা যাবে না। তারা বিদায় নিয়েছে নিজেদের হতশ্রী পারফরম্যান্সের কারণে। প্রথম দুই ম্যাচে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের কাছে শোচনীয় হারের পর ছোট দলগুলোর বিপক্ষে দাদাগিরি দেখালেও তাতে শুরুর ক্ষতি পোষানো সম্ভব হয়নি। কাল নামিবিয়ার বিপক্ষে অর্থহীন ম্যাচ দিয়ে হতাশার বিশ্বকাপ শেষ করেছে বিরাট কোহলির ভারত। অধিনায়ক হিসাবে ভারতকে কোনো শিরোপা জেতাতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে টি ২০-র নেতৃত্ব ছাড়লেন কোহলি। কেন এই ব্যর্থতা? ভারতের প্রথম বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব ব্যাটিং-বোলিং নিয়ে কাটাছেঁড়া না করে জাতীয় দলের প্রতি ক্রিকেটারদের আত্মনিবেদন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আইপিএলেই ভারতের সর্বনাশ দেখছেন কপিল, ‘দেশের হয়ে খেলার চেয়ে ক্রিকেটাররা যখন আইপিএলকে অগ্রাধিকার দেয়, তখন আর কীইবা বলার থাকে। আমি মনে করি সবার আগে দেশ। দেশের হয়ে খেলতে পেরে তাদের গর্বিত হওয়া উচিত... বোর্ডকেও এর দায় নিতে হবে এবং আরও ভালো পরিকল্পনা করতে হবে। এবার যেসব ভুল করেছি আমরা, তার পুনরাবৃত্তি যেন না হয় এটাই হবে আমাদের জন্য বড় শিক্ষা।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply