Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » গ্রিসের উত্তরাঞ্চলের সড়ক দুর্ঘটনায় সাত অভিবাসনপ্রত্যাশী নিহত ও আরও আটজন আহত




হয়েছেন। শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) তাদের বহনকারী গাড়ি সেখানকার একটি মহাসড়কের টোল স্টেশনে ধাক্কা খেলে এই প্রাণহানি ঘটেছে।স্থানীয় পুলিশের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে। প্রাথমিক তদন্ত বলছে, গাড়ির চালক ১৪ অভিবাসীকে দেশের অভ্যন্তরে নিয়ে যাচ্ছিলেন। আহত চালক বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত হতাহতদের জাতীয় পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি। মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা ও এশিয়া থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অন্যতম প্রধান গমনপথ বলা হয় গ্রিসকে। তুর্কিশ উপকূল থেকে বিপজ্জনক নৌকাযোগে তারা গ্রিসের দ্বীপে পৌঁছান। অথবা তুরস্কের সঙ্গে উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় স্থলসীমান্ত দিয়েও তারা প্রতিবেশী গ্রিসে ঢোকেন। এদিকে বেলারুশ থেকে অভিবাসীদের নিজ দেশ পোল্যান্ডে প্রবেশে সহায়তা করছেন দেশটির মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রধান মুফতি তোমাসজ মিসকিউইকজ। তার এ সহায়তা কোনো ধর্মীয় ভিত্তিতে না, বরং মানবিক দিক বিবেচনা করেই তিনি অভিবাসীদের সহায়তা হাত বাড়িয়েছেন। পোল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলে লিপিকা তাতারসদের সঙ্গে কাজ করছেন এই মুফতি। ইউরোপের সবচেয়ে প্রাচীন মুসলিম সম্প্রদায়ের একটি লিপিকা তাতারদের অংশ হিসেবে প্রায় দুই হাজার মানুষ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সহায়তায় সক্রিয় রয়েছেন। অন্যান্য পোলিশ নাগরিকদের সঙ্গে তারাও মানবিক সহায়তার কাজে নেমে পড়েছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলছে, রাশিয়ার মিত্র বেলারুশ বর্তমানে অভিবাসন সংকটের মূলহোতা। কারণ মিনসকে রাজনৈতিক ভিন্নমতাবলম্বীদের ওপর ধরপাকড়ের দায়ে বেলারুশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। অভিবাসন সংকট তৈরি করে ইউরোপের বিরুদ্ধে সেই নিষেধাজ্ঞার প্রতিশোধ নিচ্ছে বেলারুশ। ইরাক ও আফগানিস্তান থেকে যাওয়া প্রায় চার হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী প্রচণ্ড ঠাণ্ডার মধ্যে বর্তমানে পোল্যান্ড সীমান্তের বনের মধ্যে অপেক্ষায় আছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও ন্যাটো দেশগুলোর সঙ্গেও পোল্যান্ডের বিস্তারিত সীমান্ত রয়েছে। মুফতি তোমাসজ মিসকিউইকজ বলেন, পোল্যান্ডে কোনো ব্যক্তির বৈধভাবে থাকার অধিকার থাকুক কিংবা না-ই থাকুক, তার মাথা গোঁজার ঠাঁই, প্রয়োজনীয় খাবার ও শালীন পোশাকের প্রয়োজনীয়তা আছে। এসব মৌলিক অধিকারের নিশ্চয়তা দিতে হবে। আরও পড়ুন: অভিবাসীদের সহায়তায় এগিয়ে এল তাতার মুসলিমরা পোল্যান্ডের একটি ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী তাতারস। দেশটির ৯০ শতাংশ মানুষ ক্যাথলিক। ইউরোপীয় দেশটির সমাজ ও রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে ক্যাথলিক গির্জা। মানবিক সহায়তায় গির্জার ভূমিকারও প্রশংসা করেছেন মুফতি তোমাসজ। তিনি বলেন, পোল্যান্ডের মুসলমানেরাও একই কাজ করছেন। গেল কয়েক সপ্তাহ ধরে যারা সীমান্ত অতিক্রম করছেন, তাদের সহায়তায় কাজ করছেন তিনি ও তাতার সম্প্রদায়ের নেতা ম্যাসিয়েজ সিকনোউইকস। তাতারস প্রধান বলেন, পোল্যান্ড ও জার্মানির লোকজন আমাদের জন্য অর্থসহ বিভিন্ন সরঞ্জমাদি পাঠাচ্ছেন। মুসলমানদের জন্য যা অনেক বড় সহায়তা। আমরা সেনাদের জন্য স্যুপ রান্না করছি। প্রতিদিন অন্তত ৩০০ জনকে খাবার যোগান দিচ্ছি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply