Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » জ্বালানি তেল ঘাটতির খবর ভিত্তিহীন’




সরকারের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ দেশের বিভিন্ন প্রান্তিক অঞ্চলগুলোয় জ্বালানির (পেট্রোল ও অকটেন) সরবারহের ঘাটতির খবরকে ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করে, সংকটের গুজব ছড়িয়ে কোথাও জ্বালানির বাড়তি মূল্য আদায় করা হলে ‘কঠোর ব্যবস্থা’ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) দেশের পেট্রোল ও অকটেনের মজুত ও আমদানি পরিস্থিতি তুলে ধরে এ ব্যাখ্যা দিয়েছে মন্ত্রণালয়। ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, দেশে অকটেন ও পেট্রোলের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে। ‘প্রান্তিক বিভিন্ন ফিলিং স্টেশনে জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে’ এবং ‘বেশি দামে পেট্রোল ও অকটেন কিনতে হচ্ছে’- এ সকল বক্তব্য ভিত্তিহীন। সরকার ডিপোর ৪০ কিলোমিটারের মধ্যে অকটেন প্রতিলিটার ৮৯ টাকা এবং পেট্রোল প্রতিলিটার ৮৬ টাকা নির্ধারণ করেছে। এবং মন্ত্রণালয় বলেছে, সরকারনির্ধারিত মূল্যের অতিরিক্ত মূল্যে কোনোক্রমেই কোনো পেট্রোল পাম্প জ্বালানি তেল বিক্রি করতে পারবে না। আরও পড়ুন: টেসলার ‍শেয়ার বিক্রি করেছেন ইলন মাস্ক এ দিকে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) হিসাব অনুযায়ী, মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) অকটেন ও পেট্রোলের মোট মজুত ছিল ৫৫ লাখ ৮০০ টনের বেশি। এ ছাড়াও নভেম্বর মাসে ৩৯ হাজার টনের বেশি এবং ডিসেম্বরে ৬৫ হাজার টনের বেশি অকটেন আমদানি করা হচ্ছে। অপরদিকে রাষ্ট্রীয় ইস্টার্ন রিফাইনারিতে ও জ্বালানি তেল উৎপাদনকারী দেশীয় প্লান্টগুলোতে অকটেন ও পেট্রোল উৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। দেশে প্রতিমাসে গড়ে ৩০ হাজার টন অকটেন ও ৩৩ হাজার টন পেট্রোলের চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে পেট্রোলের সম্পূর্ণ চাহিদা দেশীয় উৎপাদন থেকেই পূরণ হয়ে থাকে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply