Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » অনুমোদনহীন বাস চলতে পারবে না রাজধানীতে : তাপস




অনুমোদনহীন বাস চলতে পারবে না রাজধানীতে : তাপস

কোনো ধরনের অনুমোদনহীন বাস রাজধানীতে চলতে পারবে না বলে জানিয়েছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেন, ঢাকা শহরে চলাচল করার জন্য যেসব রুটে পরিবহন মালিকগণ পারমিট নিয়েছেন সেই রুটেই বাস পরিচালনা করতে হবে। পারমিটের বাইরে কোনো পরিবহন অন্য রুট ব্যবহার করতে পারবে না। upay রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ঢাকা নগর পরিবহন বাস রুট পাইলটিংয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। মেয়র তাপস বলেন,পর্যায়ক্রমে রাজধানীর সব রুটে ঢাকা নগর পরিবহন পরিচালিত হবে। আমাদের আরও কাজ বাকি আছে। রাজধানীর বাইরের বাসের জন্য শহরের বাইরে বাস টার্মিনাল করব। যেন বিভিন্ন জেলা থেকে আসা বাস আর শহরের মধ্যে ঢুকতে না পারে। তিনি বলেন, এ রুটে কোনো অসুস্থ প্রতিযোগিতা থাকবে না, সুনির্দিষ্ট জায়গায় যাত্রী তোলা হবে। ঢাকাবাসীর কাছে নিবেদন সুশৃঙ্খলভাবে আপনারা বাসে উঠবেন, নির্দিষ্ট জায়গা থেকে বাসে উঠবেন, ই-টিকিটিংয়ের মাধ্যমে বাসে উঠার কথাও বলেন তিনি। আজ আমরা ৫০টি বাস দিয়ে শুরু করেছি, পর্যায়ক্রমে ১০০টি দেব। এরপর প্রয়োজন হলে আরও বাস দেওয়া হবে। ২০২৩ সালের মধ্যে পুরো ঢাকায় নগর পরিবহন চালু করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন তিনি। ঢাকা নগর পরিবহনে ঘাটারচর-কাঁচপুর রুটে প্রায় ২৭ কিলোমিটার দূরত্বে সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা, সর্বোচ্চ ভাড়া ৫৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি কিলোমিটার দুই টাকা ১৫ পয়সা হিসেবে ভাড়া পরিশোধ করতে হবে। কেউ যদি এক স্টেশন থেকে উঠে পরের স্টেশনে নামে তাহলে তাকে ১০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। সিটি করপোরেশনের এই উদ্যোগের আওতায় প্রাথমিকভাবে বিআরটিসির ৩০টি ডবল ডেকার এবং ট্রান্স সিলভা পরিবহনের ২০টি বাসসহ মোট ৫০টি বাস নামছে। দুই মাসের মধ্যে এতে যুক্ত হবে ১০০টি বাস। আর এ রুটে রুট পারমিটবিহীন কোনো বাস চলতে দেওয়া হবে না। ডিএসসিসি বলছে, শৃঙ্খলবদ্ধ গণপরিবহন ব্যবস্থাপনায় নবদিগন্তের সূচনা হতে যাচ্ছে। ঢাকা মহানগরীর গণপরিবহনে ঢাকা নগর পরিবহন নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে তারা আশাবাদী। রুটগুলো র‌্যাশনালাইজেশনের মাধ্যমে ‘ঢাকা নগর পরিবহন’ সেবা চালুর উদ্যোগটি নিয়েছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক, ২০১৫ সালে। ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর তার মৃত্যুর পর থেমে যায় এই পরিকল্পনার বাস্তবায়ন। দীর্ঘ অপেক্ষার পর তা আবার চালু করতে যাচ্ছেন দুই মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ও আতিকুল ইসলাম। বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সভাপতি ও ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন— ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা-১৩ আসনের সংসদ সদস্য সাদেক খান প্রমুখ।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply