Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » গুলশানে গৃহকর্তার সঙ্গে সম্পর্কের বলি গৃহকর্মী! গৃহকর্ত্রী গ্রেপ্তার




রাজধানীর তুরাগের দিয়াবাড়ির ঝাউবন এলাকা থেকে পারভীন ওরফে ফেন্সি আরা (ইনসেটে) হত্যার ঘটনায় গুলশান নিকেতন থেকে গৃহকর্তা ও গৃহকর্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। তিন দিন আগে রাজধানীর তুরাগের দিয়াবাড়ির ঝাউবন এলাকা থেকে পারভীন ওরফে ফেন্সি আরা (৩০) নামের এক গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দাবি, গৃহকর্তার সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের সন্দেহের জেরে পারভীনকে হত্যা করেন গৃহকর্ত্রী। আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পিবিআই ঢাকা মেট্রো উত্তর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সংস্থাটির বিশেষ পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম। পিবিআই বলছে, ফেন্সি আরা গুলশানের নিকেতনে একটি বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতেন। ওই বাসার গৃহকর্তা সৈয়দ জসীমুল হক (৬৩) ও গৃহকর্ত্রী সৈয়দা সামিনা হাসান (৬০)। জসীমুল হকের সঙ্গে পারভীনের অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে এমন ধারণা থেকে সামিনা হাসান গৃহকর্মীকে হত্যা করে। পরে তার লাশ গাড়িচালকের সহায়তায় তুরাগের ঝাউবন এলাকায় ফেলা হয়। এ কথা স্বীকারও করেছে সামিনা হাসান। মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গৃহকর্মী পারভীনের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের চিরিরবন্দর আলোকডিহি সরকারপাড়া এলাকায়। তার বাবার নাম রমজান আলী। স্বামীর নাম মোমিনুল হক। জীবিকার সন্ধানে ছয় বছর আগে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় আসেন তিনি। স্বামী রিকশা চালানো শুরু করেন। আর পারভীন গৃহকর্মীর কাজ নেন। তাকে মাসে সাত হাজার টাকা করে পারিশ্রমিক দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, তাকে মাত্র এক হাজার টাকা করে দেওয়া হতো। বিশেষ পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর বলেন, ‘গৃহকর্তা জসীমুলের সঙ্গে ফেন্সির অনৈতিক সম্পর্ক আছে বলে সন্দেহ করতেন গৃহকর্ত্রী সামিনা হাসান। এ সন্দেহের জেরে ১ ডিসেম্বর সকালে ফেন্সিকে লাঠি দিয়ে মারধর করেন সামিনা। এতে তিনি জ্ঞান হারালে তার বুকে জোরে চাপ দেওয়া হয়। এতে বুকের হাড় ভেঙে ফেন্সির মৃত্যু হয়। হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দিতে গাড়িচালক রমজান আলীর সহায়তায় তুরাগের দিয়াবাড়ির ঝাউবনে তার লাশ ফেলে দেওয়া হয়।’ পিবিআই আরও জানায়, ফেন্সির স্বামী মোমিনুল ঢাকায় রিকশা চালান। পারভীন ওই বাসায় কাজ নেওয়ার পর তার সঙ্গে মোমিনুলকে দেখা করতে দেওয়া হতো না। এ নিয়ে গুলশান থানায় গত অক্টোবরে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন মোমিনুল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply